https://ratdin.news
শেকড়ের খবর সবার আগে...

আরপিএমপি ডিবি পুলিশের গৌরবময় সাফল্যের এক বছর

আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় সাফল্যের এক বছর অতিক্রম করলো রংপুর মেট্রোপলিটন ডিবি পুলিশ । গৌরবের এই বছরটিতে অপরাধ দমনে অভূতপূর্ব সাফল্য দেখিয়েছে তারা।

পুলিশের এই বিভাগটির এক বছর পুর্তি হবে আগামী সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর।

বিগত এই বছরটিতে তারা জটিল ও রহস্যাবৃত মামলার জট খুলেছে দ্রুত, রহস্য উম্মোচন করে দীর্ঘ মেয়াদী মামলাকে করেছে সংক্ষিপ্ত। মাদক উদ্ধার ও কারবারিকে গ্রেফতার করেছে একাধিক। একের পর এক সাঁড়াশি অভিযানে লন্ডভন্ড করে দিয়েছে মাদকের আস্তানা। অপহৃত নবজাতক উদ্ধার, দেশী-বিদেশী টাকা, চোরাই মোটর সাইকেল উদ্ধারসহ নানা সাফল্যের কাহিনীতে নিজেদেরকে নিয়ে গেছেন অনন্য উচ্চতায়।

এই বছরে অসীম সাহসিকতা ও বীরত্বপূর্ণ কাজের স্বীকৃতি স্বরুপ রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনারের কাছ থেকে ৪ বার শ্রেষ্ট পুরস্কারসহ মোট ৬ বার পুরস্কার পেয়েছে।

আরপিএমপি ডিবি পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বর থেকে ২০১৯ এর সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বিভিন্ন অপরাধের জন্য ৫৫৪ অপরাধীকে গ্রেপ্তার এবং বিভিন্ন ধারায় মোট ৩০৮টি মামলা দায়ের করেছে তারা।

সাফল্যের পরিসংখ্যান:

পরিসংখ্যান থেকে জানা গছে, পুলিশের অন্যান্য ইউনিটের তুলনায় বহুলাংশে এগিয়ে আরপিএমপি ডিবি পুলিশ। অপহরণের চারদিনের মধ্যে অপহৃত নবজাতক উদ্ধার, ভারতীয় রুপি ও বাংলাদেশী ৩ লক্ষ ৭৭হাজার  টাকা ও  ৩২ লক্ষ টাকা মূল্যের এক ট্রাক প্লাষ্টিক উদ্ধার করেছে তারা।

মাদক বহন ও চোরাচালানে ব্যবহৃত ১৩টি মোটর সাইকেল, ৪ কেজি গাঁজা, ২৮ গ্রাম হেরোইন, ২৪০ বোতল ফেন্সিডিল, ৪৬৬৭ পিস ইয়াবা, ৭৩টি মোবাইলসহ নগদ ৪ লক্ষ ৭৭ হাজার ৭২৫ টাকা উদ্ধার করেছে এই সময়ে। সবমিলিয়ে ৭৭ লক্ষ ৬৪ হাজার ১২৫ টাকার বিভিন্ন মালামাল উদ্ধার হয়েছে। আইনের আওতায় আনা হয়েছে বহু শীর্ষস্থানীয় মাদক কারবারি, পলাতক আসামী, আন্তঃজেলা ডাকাত দল, ছিনতাইচক্রের সদস্য সহ বিভিন্ন ধরনের অপরাধীকে।

এ ব্যাপারে আরপিএমপি ডিবি পুলিশের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এবিএম ফিরোজ ওয়াহিদ বলেন, শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট যেমন আত্মতৃপ্তির, তেমনি কর্মস্পৃহা বাড়ানোর তাগিদপত্রও বটে। রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার আব্দুল আলীম মাহমুদ আমাদের কাজের মূল অনুপ্রেরণা। তাঁর চৌকস নির্দেশনায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় সাফল্যের এই ধারাবাহিকতা বজায় রেখেই কাজ করে যাবে ডিবি পুলিশ।

রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের সহকারী কমিশনার (ডিবি) আলতাফ হোসেন বলেন, পুলিশের ডিবি নতুন একটি ইউনিট। মোট ৩১জন জনবল নিয়ে ডিবি পুলিশ কাজ করছে। এখানে অনেক সীমাবদ্ধতা রয়েছে। তার পরেও আন্তরিকতার সাথে আমরা কাজ করছি।

আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় সবর্দা ডিবি পুলিশ নিজস্ব গতিতে তাদের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। যা অব্যাহত থাকবে বলেও জানান সহকারী কমিশনার।

ভালো লাগলে লাইক দিন, শেয়ার করুন।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়েছে