https://ratdin.news
শেকড়ের খবর সবার আগে...

কালীগঞ্জে বিদ্যালয় পরিচ্ছন্নতায় ব্যাতিক্রমী আয়োজন

বৃহষ্পতিবার। দুপুর ২ টা। উত্তর বালাপাড়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়। উপস্থিত শিক্ষার্থীরা মাঠের একপ্রান্তে হাতে হাত ধরে সারিবদ্ধভাবে দাড়িয়ে আছে হুইসেলের অপেক্ষায়। হুইসেল বাজলেই শুরু হবে এগিয়ে যাওয়া। এগুতে গিয়ে মাঠে যে আবর্জনা রয়েছে তা সারিবদ্ধভাবে তুলে নেবে। এরপর তাদের সাথে থাকা আর একদল শিক্ষার্থী যারা ঝুড়ি হাতে আবর্জনা সংগ্রহের জন্য অপেক্ষা করছে তাদের ঝুড়িতে ফেলবে। হুইসেল বাজলো। শতাধিক শিক্ষার্থী নেমে গেল অভিযানে।দশ মিনিটের মাথায় আবর্জনায় পরিপুর্ণ মাঠ হয়ে উঠলো ঝকঝকে।

এমনই এক অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত দেখা গেল লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার উত্তর বালাপাড়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে।

জানা গেছে, এই স্কুলটিতে সপ্তাহে এ দিনটি পরিচ্চন্নতা দিবস হিসাবে পালন করেন শিক্ষার্থী, কর্মচারী, শিক্ষিকবৃন্দ মিলিতভাবে।

বিদ্যালয়টিতে আছে ছাত্র সংসদের নির্বাচিত টিম লিডার, গ্রুপ লিডার। পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রমটি মুলত পরিচালনা করেন তারাই । ছুটির আগমুহুর্তে ১৫মিনিটের এ কর্মসূচি শুরু হয় একটি ঘন্টা বাজার সাথে সাথে। কেউ ঝুড়ি হাতে, কেউ ঝাড়ু হাতে নিয়ে লেগে যান বিদ্যালয় কক্ষ, অফিস কক্ষ, বারান্দা পরিষ্কার করেন মুহুর্তের মধ্যে।শত শত শিক্ষার্থীর শতস্ফুর্ত অংশ গ্রহনে বিশালাকার মাঠ ১০ মিনিটের মধ্যে শেষ হয়ে যায় পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম।

১০ মিনিটের মধ্যে শেষ হয়ে যায় পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম । ভিডিও: রাতদিন.নিউজ

পুরো এই কার্যক্রমটি তত্ত্বাবধান করেন স্কুলের শরীরচর্চা শিক্ষক মহেন্দ্র নাথ রায়। তিনি জানান, শিক্ষার্থীদের পড়াশুনার পাশাপাশি মিলিত প্রচেষ্টায় স্বল্প সময়ে বড় কাজ সম্পাদনের যে আনন্দ, এর মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা সে আনন্দ নিয়ে বাড়ী ফিরছে।’

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ মাহাবুবর রহমান জানান, ‘একজন ঝাড়–দার দিয়ে বিদ্যালয়ের বিরাট ক্যাম্পাস পরিচ্ছন্ন রাখা আদৌ সম্ভব নয়। বিদ্যালয় হচ্ছে আমাদের বাড়ি। নিজেদের বাড়ি নিজেরাই পরিষ্কার রাখবো- এমন ভাবনা থেকেই পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রমটি সফল করতে স্বাচ্ছন্দবোধ করেন সবাই।’

ভালো লাগলে লাইক দিন, শেয়ার করুন।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়েছে