https://ratdin.news
শেকড়ের খবর সবার আগে...

জীবনধারণের উপযোগী ছিল আরো ৩ গ্রহ

সৌরজগতে পৃথিবীর মতো পানিপূর্ণ এবং জীবনধারণের জন্য উপযোগী আরও ৩ টি গ্রহ ছিল। এমন দাবি করেছেন গবেষক প্রফেসর ব্রায়ান কক্স ও লেখক অ্যান্ড্রু কোহেন। সম্প্রতি তাদের লেখা ‘প্লানেটস’ নামের বইয়ে এ সম্পর্কিত তথ্য তুলে ধরা হয়েছে। বইটি আগামী সপ্তাহে প্রকাশিত হবার কথা রয়েছে।

তাদের দাবি, একসময় পৃথিবীর ৩ টি প্রতিবেশী নীল গ্রহ (যে গ্রহে পানি আছে) ছিল। বর্তমানে জীবনধারণের অনুপযোগী হলেও মঙ্গল, শুক্র ও বুধ গ্রহে অতীতে নদী ও সাগরের অস্তিত্ব ছিল।

পৃথিবীর সবচেয়ে নিকটবর্তী গ্রহ শুক্র। জীবনধারণের অনুপযোগী হলেও প্রাকৃতিক বৈশিষ্ট্যের কারণে একে বলা হয় ‘পৃথিবীর দুষ্ট জমজ’। এখানকার উত্তপ্ত আবহাওয়ায় সীসা গলে যাবে। এর বায়ুমণ্ডল ছেয়ে আছে সালফিউরিক এসিডের বিষাক্ত মেঘে।

ধারণা করা হচ্ছে, সাগর, নীল আকাশ আর মেঘসমৃদ্ধ প্রথম গ্রহ ছিল এই শুক্র। ৭০০ মিলিয়ন বছর আগে শুকিয়ে যাওয়ার আগে অন্তত ২ বিলিয়ন বছর এটি বসবাসের উপযোগী ছিল।

প্রফেসর ব্রায়ান ও কোহেন তাদের বইয়ে লিখেছেন, বছরের পর বছর ধরে চলা সব অনুসন্ধানের তথ্য একটি বিষয়ই নির্দেশ করে, শুক্র গ্রহে একসময় সাগর ছিল।

বুধ গ্রহের ব্যাপারে বলা হয়, পৃথিবী ও মঙ্গলের কাছাকাছি ধরনের পরিমণ্ডল ছিল এ গ্রহের।

তারা বলেন, বুধ গ্রহের পরিমণ্ডলের আকার অনেক বড় ছিল, যা বায়ুমণ্ডল ধরে রাখতে সক্ষম। বৃহস্পতি গ্রহের টানে এর বায়ুমণ্ডল বিধ্বস্ত হওয়ার আগে সেখানে প্রাণ বিকাশের উপযোগী সব উপাদানই ছিল।

লেখকদের মতে, মঙ্গল ছিল জীবনধারণের সবচেয়ে উপযোগী গ্রহ। লাল এই গ্রহটি একসময় ছিল চকচকে নীল। সেখানে পাহাড় বেয়ে ঝরণা নামতো, নদী ছুটে চলতো বিস্তৃর্ণ অঞ্চলজুড়ে।

চলতি মাসের শেষের দিকে বিবিসি২ চ্যানেলে একটি ডকুমেন্টারি সিরিজ প্রচারিত হবে। ‘দ্য প্লানেটস’ নামের ওই ডকুমেন্টারিতে সৌরজগতে মানুষের বিভিন্ন অভিযান দেখানো হবে।

প্রসঙ্গত, প্লানেটস বইয়ের প্রধান লেখক ব্রায়ান কক্স। একসময় একটি ব্যান্ডদলে কিবোর্ড বাজাতেন তিনি। হ্যামবুর্গের হাই এনার্জি পার্টিকেল ফিজিক্স থেকে তিনি পিএইচডি ডিগ্রি লাভ করেন।

এনএইচ/রাতদিন

ভালো লাগলে লাইক দিন, শেয়ার করুন।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়েছে

error

নিয়মিত সংবাদের জন্য সাবস্ক্রাইব করুন