ঢাকা-জলপাইগুড়ি ট্রেন থামবে না সৈয়দপুরে, যাত্রাবিরতির দাবীতে মানববন্ধন

0

ঢাকা ও ভারতের নিউ জলপাইগুড়ি চলাচলকারী যাত্রীবাহী ট্রেনের সৈয়দপুরে যাত্রা বিরতির দাবিতে নীলফামারীর সৈয়দপুরে মানববন্ধন হয়েছে। সৈয়দপুরবাসীর ব্যানারে ঘন্টাব্যাপী এই মানববন্ধনে ব্যবসায়ী, শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন পেশার নানা বয়সী বিপুল সংখ্যক মানুষ অংশ নেন।

আজ রোববার, ১৪ মার্চ শহরের শহীদ ডা. জিকরুল হক রোডের সৈয়দপুর প্রেসক্লাবের সামনে ওই মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়।

মানববন্ধন চলাকালে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এতে বক্তব্য দেন নীলফামারী চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রির পরিচালক মতিয়ার রহমান দুলু, জাপা নেতা শিল্পপতি মো. সিদ্দিকুল আলম সিদ্দিক, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির স্থানীয় নেতা রুহুল আলম মাস্টার,জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদ সৈয়দপুর শাখার সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা ফজলুর রহমান।

অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, নাট্য সংগঠক আতাউর রহমান ময়না, আওয়ামী লীগ নেতা রইচ উদ্দিন মতি জোতদার, সাংবাদিক এম আর আলম ঝন্টু, সাব্বির আহেমদে সাবের, সিটি কর্পোরেশন বাস্তবায়ন কমিটিরর আহবায়ক তামিম রহমান ও যুগ্ম-মনিরুজ্জামান মনির, সমাজসেবক রবিউল আউয়াল রবি প্রমুখ।

এসময় বক্তারা বলেন, দেশের ভৌগলিক সীমারেখার কারণে রংপুর বিভাগের ৮ জেলার সুবিধাজনক অবস্থানে রয়েছে সৈয়দপুর রেলওয়ে স্টেশন। এছাড়া এখানে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর নির্মাণ কাজ চলমান। আর সৈয়দপুর তথা এ অঞ্চলের মানুষ ব্যবসা, চিকিৎসা, শিক্ষা বিভিন্ন কারণে প্রতিনিয়ত ভারতে যাতায়াত করেন।

তাই ঢাকা-ভারতের নিউ জলপাইগুড়ির মধ্যে চলাচল শুরু হওয়া আন্তঃদেশীয় ‘সম্প্রীতি এক্সপ্রেস’ যাত্রীবাহী ট্রেনের যাত্রাবিরতি প্রয়োজন সৈয়দপুর রেলওয়ে স্টেশনে। তা না হলে এ অঞ্চলের মানুষকে ওই ট্রেনে ভারতে যেতে ঢাকায় গিয়ে আবারও সৈয়দপুর হয়েই যেতে হবে। এতে করে এ অঞ্চলের মানুষ চরম বিড়ম্বনায় পড়বেন।

এ জনপদের মানুষের দূর্ভোগ লাঘবে সৈয়দপুর রেলওয়ে স্টেশনে ইমিগ্রেশন সুবিধা চালু করে আন্তঃদেশীয় ‘সম্প্রীতি এক্সপ্রেস’ যাত্রীবাহী ট্রেনের যাত্রা বিরতির দাবি জানান তারা। এ জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়েছে বলে জানান বক্তারা।

লাইক দিয়ে সাথে থাকুন