দফায় দফায় সংঘর্ষ, আবারো রণক্ষেত্র নিউমার্কেট এলাকা

নিউমার্কেটের ব্যবসায়ীদের সঙ্গে ঢাকা কলেজের ছাত্রদের সংঘর্ষ গতকাল সোমবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে থামলেও আজ মঙ্গলবার সকাল থেকে আবার শুরু হয়েছে। সংঘর্ষে ইটপাটকেল ছোড়াছুড়ি চলছে উভয়পক্ষের মধ্যে।
এসময় ইটপাটকেল, লাঠিসোঁটা ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে মুখোমুখি অবস্থান করছে। তাদের মধ্যে অনেকের মাথায় হেলমেট পড়া অবস্থায়ও দেখা গিয়েছে। তবে গতকাল রাতে সংঘর্ষের সময় বিপুলসংখ্যক পুলিশ সদস্যের উপস্থিতি থাকলেও আজ সকাল থেকে কোনো পুলিশ দেখা যায়নি। সংঘর্ষের কারণে রাজধানীর ব্যস্ত মিরপুর সড়কে যানচলাচল পুরোপুরি বন্ধ রয়েছে।

আজ সকাল সোয়া ১০টার দিকে সংঘর্ষ শুরু হয়। দফায় দফায় সংঘর্ষ চলছে। ঢাকা কলেজের ছাত্রদের একটি অংশ কলেজের ছাদে, আরেকটি অংশ চন্দ্রিমা মার্কেটের সামনে অবস্থান নিয়েছে।

ঘটনাস্থলে দেখা যায়, ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীরা রাস্তায় অবস্থানের পাশাপাশি কলেজের ছাদে অবস্থান নিয়েছে। তাদের সড়ক এবং ছাদ দুই জায়গা থেকেই ব্যবসায়ীদের দিকে ইটপাটকেল মারতে দেখা যায়। ছাদ আর সড়কের প্রতিরোধ এক সঙ্গে হওয়ায় ব্যবসায়ীরা পিছু হটে। আবার ব্যবসায়ীরা নিউ মার্কেট, গাউছিয়া মার্কেট, চন্দ্রিমা মার্কেট, চাঁদনী চক মার্কেট এলাকায় জড়ো হয়ে শিক্ষার্থীদের ওপর ইটপাটকেল ছুড়তে থাকে। ব্যবসায়ীদের একটি অংশ সরাসরি শিক্ষার্থীদের সঙ্গে চলা সম্মুখ লড়াইয়ে অংশে নিচ্ছে। আরেকটি অংশ ইট, পাথর সরবারাহ করছে।

অভিযোগ রয়েছে, নিউ মার্কেটের ব্যবসায়ীদের মধ্যে যারা হামলায় অংশ নেয়নি বা দোকান বন্ধ করে ভেতরে অবস্থান করছে, তাদের জোর করে রাস্তায় নামিয়ে আনা হয়েছে।

গতকাল রাত ১২টার দিকে ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়ান ব্যবসায়ীরা। শিক্ষার্থীর দাবি, এদিন রাতে ঢাকা কলেজের কয়েকজন শিক্ষার্থী রাত ১২টার দিকে নিউমার্কেটে কেনাকাটা করতে যান। কেনাকাটা নিয়ে ব্যবসায়ীদের সঙ্গে তাদের কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে দুই শিক্ষার্থীকে ছুরিকাঘাত করা হয়। এ খবর ক্যাম্পাসে ছড়িয়ে পড়লে সেখানে যান ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীরা। তারা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন।

পরে সংঘর্ষ থামাতে বিপুল পুলিশ ঘটনাস্থলে আসেন। একপর্যায় তারা ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীদের কলেজের ভেতরে ঢুকিয়ে দেন। এসময় রাবার বুলেট ও কাঁদনে গ্যাসের সেল ছুড়েন তারা। রাবার বুলেটে বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী আহত হন। এদের মধ্যে গুলিতে ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীদের দুই শিক্ষার্থী গুরুতর আহত হয়েছেন। তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ছাড়া আরও কয়েকজনের আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীদের উপর পুলিশের হামলার প্রতিবাদে আজ মঙ্গলবার (১৯ এপ্রিল) সকাল থেকেই নীলক্ষেত মোড়ে অবস্থান নেয় শিক্ষার্থীরা। এরপর শুরু হয় সংঘর্ষ। সকাল সাড়ে ১০টার পর নীলক্ষেত মোড় থেকে সায়েন্সল্যাব পর্যন্ত এলাকায় থেমে থেমে সংঘর্ষ চলে। সংঘর্ষের এক পর্যায়ে বেলা ১১টার দিকে ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীরা কলেজের গেটে এবং ব্যবসায়ীরা চন্দ্রিমা সুপার মার্কেটের সামনের সড়কে অবস্থান নেয়।

রাতের সংঘর্ষের জেরে এদিন সকাল থেকেই সায়েন্সল্যাব থেকে নীলক্ষেত পর্যন্ত রাস্তা অবরোধ করে রাখে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। এর ফলে মিরপুর সড়কে যানচলাচল বন্ধ রয়েছে।

সাথে থাকুন...