https://ratdin.news
শেকড়ের খবর সবার আগে...

পীরগঞ্জে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ দাবিতে সড়ক অবরোধ

সড়ক বর্ধিতকরণ ও অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের দাবিতে রংপুরের পীরগঞ্জে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী আঞ্চলিক মহাসড়ক অবরোধ করেছে। বাঁশের চাটাই ও ইট ফেলে সড়কে এসময় যান চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়। বুধবার, ১০ জুলাই বেলা ১১ টা থেকে প্রায় ২ ঘন্টাব্যাপী অবরোধের কারণে উপজেলা সদরে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। পরে ইউএনওসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের আশ্বাসের প্রেক্ষিতে অবরোধ প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়।

জানা গেছে, পীরগঞ্জ পৌরসভার ওসমানপুর ও প্রজাপাড়ার মধ্য দিয়ে জনগুরুত্বপুর্ন সড়কটি সংস্কারের অভাবে দীর্ঘদিন ধরে এলাকাবাসী চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছে। পৌরসভার ভিতর দিয়ে যাওয়া সাদুল্লাপুর-পীরগঞ্জ-নবাবগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়কের ওসমানপুর ও প্রজাপাড়ায় বৈশাখী হোটেল মোড় থেকে উপজেলা চেয়ারম্যানের বাড়ী পর্যন্ত আরসিসি রাস্তা ও ড্রেন নির্মানে মেসার্স সেতু কনষ্ট্রাকশনকে ঠিকাদার নিয়োগ দেয়া হয়।

প্রায় ২১ লাখ টাকা বরাদ্দে ২০১৮ সালের ১০ সেপ্টেম্বর মেয়র এসএসএম তাজিমুল ইসলাম শামীম কাজটি উদ্বোধন করেন। এরপর বিভিন্নস্থানে অবৈধ স্থাপনার কারণে বাধাগ্রস্থ হওয়ায় ২ বছরেও তা সম্পন্ন হয়নি। ফলে সড়কে চলাচল মারাত্মকভাবে বিঘ্নিত হওয়ায় স্থানীয় জনতা বিক্ষুব্ধ হয়ে বাশের বেড়া (চাটাই), ইট দিয়ে আঞ্চলিক মহাসড়কটি অবরোধ করে এবং অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে শ্লোগান দেয়।

অবরোধে অংশগ্রহনকারী প্রভাষক আবু হায়াত মোছাদ্দেক লাবু, মতলুবর রহমান, পলাশ মিয়া বলেন, সদরের মধ্যে একটি জনগুরুত্বপূর্ন রাস্তা বছরের পর বছর ধরে চলাচলের অযোগ্য হয়ে রয়েছে। পাশেই মেয়রের কার্যালয় এবং উপজেলা চেয়ারম্যানের বাড়ী হলেও কেউই নজর দেননি। পাশাপাশি ২১ ফুট প্রশস্ত সড়কটির মধ্যে মাত্র ১১ ফুট অবমুক্ত রয়েছে। এক ব্যবসায়ীর বিল্ডিং অবৈধভাবে নির্মিত হলেও সে তা ভাঙ্গছে না। আমরা এর প্রতিবাদে আঞ্চলিক মহাসড়কে বাঁশের বেড়া দিয়ে অবরোধ করেছি।

ইউএনও টিএমএ মমিন বলেন, পৌর মেয়র অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের জন্য জেলা প্রশাসকের কাছে আবেদন করলে সেগুলো উচ্ছেদের জন্য অনুমোদন পাওয়া গেছে। শিগগিরই ম্যাজিট্রেট নিয়োগ করে স্থাপনা উচ্ছেদ করা হবে।

আরআই/রাতদিন

ভালো লাগলে লাইক দিন, শেয়ার করুন।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়েছে