শেকড়ের খবর সবার আগে

পীরগঞ্জে ১২ কোটি টাকায় নির্মিত হচ্ছে আধুনিক স্থাপত্যসমৃদ্ধ মসজিদ

রংপুরের পীরগঞ্জে প্রায় ১২ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত হচ্ছে ‘আলতাব নগর জামে মসজিদ’। আধুনিক স্থাপত্য শৈলীতে নির্মিত এই মসজিদটি উপজেলার চতরাহাটের উত্তরে ‘আলতাব নগর’ এ নির্মিত হচ্ছে। দুবাই প্রবাসী বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আলতাব হোসেন ব্যক্তিগত উদ্যোগে দ্বিতল এই মসজিদটি নির্মান করছেন ।

জানা গেছে, উপজেলা সদরের চতরা ইউনিয়নের প্রয়াত আলহাজ্ব আব্দুল কুদ্দুছ মিয়ার ছেলে আলতাব হোসেন (৪৫)। দীর্ঘদিন ধরে তিনি দুবাইয়ে সপরিবারে বসবাস করে প্লাস্টিক কারখানার ব্যবসা করছেন। প্রবাসে থাকাবস্থায় তিনি তার জন্মস্থান পীরগঞ্জের চতরায় ২০১৬ সালের ২ জানুয়ারী ৫ একর জমি কিনে ‘আলতাবনগর’ নামকরণ করেন।

সেখানেই মসজিদ, এতিমখানা, পারিবারিক ও সর্বসাধারনের জন্য কবরস্থান প্রতিষ্ঠার জন্য পরিকল্পনা নিয়ে অবকাঠামো নির্মান শুরু করেছেন। বর্তমানে আলতাব নগরেই হচ্ছে দুবাইয়ের ডিজাইনে ৪ তলা উচ্চতা বিশিষ্ট (৩৪ ফুট) দ্বিতল মসজিদ নির্মান কাজ।

চলতি বছরের ৯ জানুয়ারী আলতাব হোসেনের বাবা আলহাজ্ব আব্দুল কুদ্দুছ মিয়া আধুনিকমানের আলতাব নগর জামে মসজিদের ভিত্তি স্থাপন করেন বলে জানা গেছে।

এটি নির্মানে ৩ বছর সময় লাগবে। দৈর্ঘ্যে ১’শ ফুট এবং প্রস্থে ৮০ ফুটের মসজিদটিতে একসাথে ২ হাজার মুসল্লি নামাজ আদায় করতে পারবেন। মসজিদের চার কোনায় ১’শ ফুট উচ্চতা বিশিষ্ট ৪টি মিনার ও একটি সুউচ্চ গম্বুজ থাকবে। সমতল ভুমি থেকে ৭ ফুট উচু প্রথম তলার মেঝে এবং মেঝে থেকে ১৭ ফুট উচ্চতায় প্রথম তলার ছাদ নির্মান করা হয়েছে।

প্রায় ১০ মাস পর দ্বিতীয় তলার ছাদও ১৭ ফুট উচ্চতায় ঢালাইয়ের প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। মসজিদটি নির্মানে প্রায় ১২ কোটি টাকা ব্যয় হবে বলে সংশ্লিষ্ট আর্কিটেকচার ও ইঞ্জিনিয়াররা জানান। প্রতিদিন গড়ে ৬০ জন করে নির্মান শ্রমিক সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে কাজ করছেন।

অপরদিকে আলতাব নগর চত্বরে ১ হাজার ৫’শ টি সুপারি গাছ, আম ৬০টি, নারিকেল ৫০টি সহ বিভিন্ন প্রজাতির প্রায় ১’শ টি বনজ গাছের চারা লাগিয়ে মনোরম প্রাকৃতিক পরিবেশের সৃষ্টি করা হয়েছে। ইতিপূর্বে আলতাব নগরের প্রবেশদ্বারে দৃষ্টি নন্দন সুউচ্চ গেইট নির্মান করা হয়েছে।

চতরা ইউপির চেয়ারম্যান এনামুল হক শাহীন বলেন, আলতাব নগর জামে মসজিদটি নির্মিত হলে পরিচিতি ও সম্মান বাড়াবে। ইতিমধ্যেই আলতাব নগর কবরস্থানে অনেক মরদেহ দাফন করা হয়েছে।

এ প্রসংগে আলতাব হোসেন বলেন, মহান আল্লাহর সন্তুষ্টির লক্ষ্যে ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানগুলো প্রতিষ্ঠা করছি। আল্লাহ যেন প্রতিষ্ঠানগুলো ভালভাবে চলমান রাখেন। তিনি আরও বলেন, ‘আলতাব নগর’ এর সম্পদসমুহ ট্রাষ্টের মাধ্যমে পরিচালিত হবে। এ সব কাজের পিছনে আমার কোন রাজনৈতিক উদ্দেশ্য নেই।

জেএম/রাতদিন

লাইক দিয়ে সাথে থাকুন