https://ratdin.news
শেকড়ের খবর সবার আগে...

বিপিএলে ফিক্সিংয়ে জড়িয়ে ছিলেন নাসির জামশেদ

কিছুতেই ম্যাচ গড়াপেটার কেলেঙ্কারি থেকে বের হতে পারছে না ক্রিকেট। বিশেষ করে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটেই চোখ জুয়াড়িদের। বিস্মিত হওয়ার মতোই ঘটনা, বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএলে) জুয়াড়িদের কাছ থেকে টাকা নিয়েছিলেন নাসির জামশেদ। পাকিস্তানের এই ক্রিকেটার অর্থ নেওয়ার কথা স্বীকার করেছেন।

ইংল্যান্ডের ম্যানচেস্টারের একটি আদালতে জবানবন্দিতে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন নাসির। এই ঘটনায় শুধু জামশেদ একা নন, ইউসুফ আনোয়ার ও মোহাম্মদ ইজাজ নামে পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত দুই ব্রিটিশ নাগরিকও জড়িত।

অবশ্য নামির জামশেদ অনেক দিন ধরেই ক্রিকেটের বাইরে। তার বিরুদ্ধে অভিযোগও নতুন নয়। ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারিতে ফিক্সিংয়ের অভিযোগে ইংল্যান্ডে আটক হন তিনি। এরপর বিচার শুরু হয় এই ক্রিকেটারের। এরমধ্যে ২০১৮ সালে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) ম্যাচ ফিক্সিংয়ের অভিযোগে ১০ বছরের নিষেধাজ্ঞা দেয় তাকে।

নাসির জামশেদ অবশ্য শুরুতে অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছিলেন। বলেছিলেন তিনি ম্যাচ গড়াপেটা করেন নি। তবে মঙ্গলবার শুনানির শুরুতেই জবানবন্দি পরিবর্তন করেন পাকিস্তানের এই ক্রিকেটার। জানিয়ে দেন ফিক্সিংয়ের জন্য সতীর্থকে ঘুষ দিয়েছেন আর নিজে অন্যদের কাছ থেকে অর্থ নিয়েছেন।

ম্যানচেস্টারের আদালতে তদন্তকারী কর্মকর্তা জানান- ২০১৬ সালের বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) জামশেদ ফিক্সিং করেন। রংপুর রাইডার্সের হয়ে খেলার সময় এই অপরাধের চেষ্টা করেন জামশেদ। জুয়াড়িদের কথা দেন-ব্যাটে একটি নির্দিষ্ট রঙের গ্রিপ লাগিয়ে মাঠে নামবেন।

যদিও সেই শর্ত পূরণ করতে পারেননি জামশেদ। আবার ২০১৬ বিপিএলে বরিশাল বুলসের বিপক্ষে ম্যাচে ফিক্সিংয়ের চেষ্টা করেন তিনি। অবশ্য একাদশ থেকেই বাদ পড়ায় সেই চেষ্টা করতে পারেন নি। অবশ্য দুটি ম্যাচে ফিক্সিং করার জন্য আগেই টাকা নিয়ে নেন জামশেদ।

পাকিস্তানি এই ক্রিকেটার অবশ্য এখানেই থামেন নি। পরের বছরের ফেব্রুয়ারিতে পাকিস্তান সুপার লিগে জুয়াড়িদের সঙ্গে পরিকল্পিতভাবে ফিক্সিং করেন। ইসলামবাদ ইউনাইটেড ও পেশোয়ার জালমির একটা ম্যাচে শর্ত ছিল প্রথম দুই বলে কোনো রান না করতে পারবেন না। তিনি তাই করেন। আটক ইউসুফ আনোয়ার জানান- এক দশকেরও বেশি সময় ক্রিকেটারদের দিয়ে ফিক্সিং করিয়ে যাচ্ছেন তিনি। ২০১৬ সালের বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) কমপক্ষে ছয়জন ক্রিকেটারকে দিয়ে এই কাজ করিয়েছেন তিনি।

ম্যানচেস্টার আদালত অবশ্য এখনই শাস্তি দেয়নি নাসির জামশেদকে। আগামী বছর ৯ ফেব্রুয়ারি ৩৩ বছর বয়সী এই ক্রিকেটারের বিপক্ষে মামলার রায় দেবে কোর্ট।

এনএ/রাতদিনৃ

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়েছে