বিশিষ্ট ব্যক্তিদের হত্যার পরিকল্পনা করেছিল জেএমবি!

0

জেএমবির ‘আধ্যাত্নিক’ নেতা মাওলানা আবুল কাশেমের ছেলে আব্দুর রহমান বিশ্বাস ওরফে ফুয়াদ ওরফে নিয়াজ (২২) র‌্যাবের অভিযানে রংপুরে গ্রেফতার হয়েছে। সে সংগঠনটির উত্তরবঙ্গের প্রধান সমন্বয়ক

নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জেএমবির ‘আধ্যাত্নিক’ নেতা মাওলানা আবুল কাশেমের ছেলে আব্দুর রহমান বিশ্বাস ওরফে ফুয়াদ ওরফে নিয়াজ (২২) র‌্যাবের অভিযানে রংপুরে গ্রেফতার হয়েছে। সে সংগঠনটির উত্তরবঙ্গের প্রধান সমন্বয়ক। তার বাড়ি কুড়িগ্রামের চিলমারী উপজেলার ভাটিয়ার চর গ্রামে।

ছবি : রাতদিন.নিউজ

মঙ্গলবার, ৮ জানুয়ারি দুপুরে রংপুরে র‌্যাব-১৩ কার্যালয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানিয়েছেন অধিনায়ক অতিরিক্ত ডিআইজি মোজাম্মেল হক।

র‌্যাব-১৩ এর অভিযানে সে ছাড়াও অপর তিন জেএমবি সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে। রংপুরে তারাগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এরা হচ্ছে দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলার ডোমাবাঘা গ্রামের আকবর আলীর ছেলে আখিনুর ইসলাম (২৩), রংপুরের তারাগঞ্জের ডাংগাপাড়া (চৌধুরীপাড়া) গ্রামের ঈমান উদ্দিনের ছেলে লোকমান আলী ওরফে কোরবান (৫৫) এবং একই উপজেলার মন্ডলপাড়া গ্রামের মতিয়ার মন্ডলের ছেলে মিজানুর রহমান (৩৮)।

গ্রেফতারকৃতদের কাছ থেকে একটি বিদেশী পিস্তল, একটি রিভলবার, দুটি ম্যাগজিন ও তিন রাউন্ড গুলিসহ বেশকিছু উগ্রবাদী বই ও লিফলেট উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাব জানায়, জেএমবির ‘আধ্যাত্নিক’ নেতা মাওলানা আবুল কাশেমকে ২০১৭ সালের মার্চে রাজধানীর মিরপুর থেকে গ্রেফতার করে র‌্যাবের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট। এর পর থেকেই আব্দুর রহমান সক্রিয় হয়ে উঠে। পরবর্তিতে সে নিষিদ্ধ ঘোষিত সংগঠনটির উত্তরবঙ্গের প্রধান সমন্বয়ক হিসেবে কাজ করছিল।

বিফ্রিংয়ে জানানো হয়, আটককৃতদের শুধু উত্তরবঙ্গেই নয় সারা দেশেই নানা ধরণের নাশকতার পরিকল্পনা রয়েছে। এনজিও’র টাকা ছিনতাই, ‘ইসলাম বিরোধী’ আখ্যা দিয়ে দেশের বিশিষ্ট ব্যক্তিদের হত্যারও পরিকল্পনা ছিল জেএমবির।

গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে বলে জানিয়েছেন রংপুর র‌্যাবের অতিরিক্ত ডিআইজি মোজাম্মেল হক।

এইচএ/০৮.০১.১৯