রংপুরের মর্গে পড়ে আছে জমজ শিশুর মরদেহ, খোঁজ নেই ‘বাবা’র

0

রংপুর মেডিকেল কলেজ (রমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা জমজ দুই শিশু মারা যাওয়ার পর থেকে মরদেহ দুটি পড়ে আছে মর্গে। দুদিনেও মরদেহ দুটি নিতে আসেনি কেউ। বাবা পরিচয়ে একজন শিশু দুটিকে ভর্তি করলেও এখন পাওয়া যাচ্ছে না তাকে। ফলে মরদেহ দুটি নিয়ে বিপাকে পড়েছে পুলিশ।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, গত ২২ এপ্রিল দিবাগত রাত সোয়া ৩টার দিকে সদ্য জন্ম নেয়া জমজ দুই শিশুকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে আসা হয়। এ সময় কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. মোস্তফা তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে হাসপাতালের ৯ নম্বর শিশু ওয়ার্ডে ভর্তি করেন। হাসপাতালের ভর্তি রেজিস্ট্রারে শিশু দু’টির বাবার নাম বাবু, পিতা মানিক, উপজেলা-পীরগঞ্জ এবং জেলা-রংপুর বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

সূত্র জানায়, শিশু দুটি চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় পরদিন দুপুরে মারা যায়। তবে কোনো স্বজন না আসায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ শিশু দুটিকে হাসপাতালের মর্গে রাখে।

কোতয়ালী থানার এসআই মামুনুর রশীদ জানান, শিশু দুটিকে হাসপাতালের জরুরি বিভাগে ভর্তির সময় যে নাম ঠিকানা দেয়া হয়েছে, সেখানে গ্রামের নাম উল্লেখ করা হয়নি। এমনকি কোনো ফোন নম্বরও দেয়া হয়নি। ফলে বাবু নামে কাউকেই খুঁজে বের করা কোনোভাবেই সম্ভব হচ্ছে না।

তিনি আরও জানান, শিশু দুটির মরদেহ ময়নাতদন্ত শেষে কোনো অভিভাবক না পেলে আঞ্জুমান মফিদুল ইসলামের মাধ্যমে অজ্ঞাতনামা হিসাবে দাফনের ব্যবস্থা করা হবে।

এবি/রাতদিন

লাইক দিয়ে সাথে থাকুন