রংপুরে লোভনীয় অফারে অবৈধ মেডিকেল পণ্য বিক্রি, প্রতিষ্ঠান সিলগালা

0

প্রতারণার মাধ্যমে রংপুরে অনুমোদনহীন অবৈধ মেডিকেল পণ্য বিক্রির অভিযোগে শাহিনুর রহমান নামে এক ব্যক্তিকে আটক করেছে মেট্টোপলিটন গোয়েন্দা পুলিশ। তিনি দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলার মারুপারা গ্রামের প্রয়াত আব্দুল হাকিমের ছেলে।

আজ শনিবার, ১৭ এপ্রিল বিকেলে নগরীর মুলাটোল (পাকারমাথা) থেকে তাকে আটক করা হয়। পরে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাহমুদ হাসান মৃধার ভ্রাম্যমাণ আদালত শাহিনুরকে এক লাখ টাকা জরিমানা, অনাদায়ে তিন মাসের কারাদণ্ডাদেশ প্রদান করেন।

শাহিনুর রহমান দীর্ঘ দিন ধরে আমদানি-রফতানি ব্যবসার আড়ালে অবৈধ মেডিকেল পণ্য বিভিন্ন অফারের প্রলোভন দেখিয়ে বিক্রি করতেন।

গোয়েন্দা পুলিশ জানায়, মাহিন এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী শাহিনুর বিভিন্ন অবৈধ ও নিম্নমানের বিদেশি পণ্য আমদানি-রফতানির ব্যবসার আড়ালে গ্রাহকদের লোভনীয় অফারে আকৃষ্ট করে আসছিলেন। যুবকদের টার্গেট করে নির্দিষ্ট পরিমাণ পণ্য বিক্রিতে লোভনীয় অফার দিয়ে প্রতারণা করছিলেন তিনি। মোটরসাইকেল, গাড়ি, চারতলা বাড়িসহ বিভিন্ন নামীদামি জিনিস দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে সাধারণ মানুষের কাছে মোটা অংকের টাকাও নিয়েছেন শাহিনুর রহমান।

আজ শনিবার মেট্টোপলিটন গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনার উত্তম প্রসাদ পাঠকের নেতৃত্বে মাহিন এন্টারপ্রাইজে অভিযান চালানো হয়। ওই প্রতিষ্ঠান থেকে বিপুল পরিমাণ অবৈধ মেডিকেল পণ্যসামগ্রী জব্দ করা হয়। একই সঙ্গে অনুমোদনহীন প্রতিষ্ঠানটিকে সিলগালা করে দেওয়া হয়।

উত্তম প্রসাদ পাঠক বলেন, সাধারণ মানুষদের টার্গেট করে প্রতারণা করে আসছিলেন শাহিনুর। তাকে আটক করে জরিমানা আদায় করা হয়। এছাড়া জব্দ করা প্রায় ১০ লাখ টাকার পণ্যসামগ্রী আগুনে পুড়িয়ে ধ্বংস করা হয়।

এইচএ/রাতদিন

লাইক দিয়ে সাথে থাকুন