https://ratdin.news
শেকড়ের খবর সবার আগে...

রংপুর-৩ উপনির্বাচন: প্রতীক পেয়েই প্রচারণায় প্রার্থীরা

রংপুর-৩ আসনে উপ-নির্বাচনে আনুষ্ঠানিক প্রচারণা শুরু করেছেন প্রার্থীরা। মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর দুপুরে রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় হতে প্রতীক বরাদ্দের পর এই প্রচারণা শুরু হয়।

মঙ্গলবার সকাল থেকে দলীয় প্রার্থীদের পক্ষে রংপুর আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ে জড়ো হতে থাকেন বিভিন্ন দলের নেতা-কর্মীরা। পরে রিটার্নিং কর্মকর্তার সভাকক্ষে থেকে একজন স্বতন্ত্রসহ অন্য পাঁচ দলের প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ করা হয়।

প্রতীক বরাদ্দের পরই দলীয় নেতা-কর্মীরা মিছিল স্লোগানে আনুষ্ঠানিক প্রচারণা শুরু করেন। এখন নিজ নিজ দলের পক্ষে সাধারণ ভোটারদের মাঝে লিফলেট বিতরণ, গণসংযোগ ও মাইকিং চলছে।

মহাজোট সমর্থিত জাতীয় পার্টির প্রার্থী রাহগীর আল মাহি সাদ এরশাদ (লাঙ্গল), বিএনপির রিটা রহমান (ধানের শীষ), এরশাদের ভাতিজা স্বতন্ত্র প্রার্থী ও সাবেক সংসদ সদস্য হোসেন মকবুল শাহরিয়ার আসিফ (মোটরগাড়ি) প্রতীক নিয়ে ভোটযুদ্ধের মাঠে নেমেছেন।

অন্যদিকে খেলাফত মজলিসের তৌহিদুর রহমান মন্ডল (দেওয়াল ঘড়ি), এনপিপির শফিউল আলম (আম) এবং গণফ্রন্টের কাজী মোঃ শহীদুল্লাহ্ (মাছ) দলীয় প্রতীক বরাদ্দ পেয়েছেন।

ভোটযুদ্ধের প্রচারণায় হেভিওয়েট প্রার্থী সাদ এরশাদ ও রিটা রহমানের সাথে স্বতন্ত্র প্রার্থী এরশাদের ভাতিজা হোসেন মকবুল শাহরিয়ার আসিফ স্থানীয় হিসেবে রয়েছেন আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে। প্রধান দুই দলের দুই প্রার্থীর সাথে আসিফের শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বীতা হবে বলে মনে করছেন সাধারণ ভোটাররা।

অন্যদিকে শতভাগ জয়ের নিশ্চয়তা দিয়ে রংপুর জেলা জাতীয় পার্টির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাজী আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘আমাদের মহাজোটের প্রার্থী সাদ এরশাদ। তার সাথে শুধু জাতীয় পার্টি নয়, আওয়ামী লীগও আছে। আমরা রংপুরবাসী বারবার লাঙ্গল ও এরশাদকে ভোট দিয়েছি। এবার তার পুত্র সাদ এরশাদকে আমরা বিপুল ভোট জয়ী করব। আমরা প্রমাণ করব রংপুর মানেই এরশাদ ও লাঙ্গল।’

এনএইচ/রাতদিন

ভালো লাগলে লাইক দিন, শেয়ার করুন।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়েছে