https://ratdin.news
শেকড়ের খবর সবার আগে...

রবীন্দ্রসংগীতে অশ্লীলতা: সেই রোদ্দুর রায়ের বিরুদ্ধে মামলা

রবীন্দ্রসংগীত বিকৃত করা, এতে অশ্লীল শব্দের প্রয়োগের কারণে পশ্চিমবঙ্গের ইউটিউবার রোদ্দুর রায়ের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। রবীন্দ্রনাথের বিখ্যাত গান ‘সেদিন দুজনে দুলেছিনু বনে’র সুর বিকৃতি ও এতে অশ্লীল শব্দ যোগ করে ভাইরাল হন রোদ্দুর রায়।

কলকাতার রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে এবারের বসন্ত উৎসবে রবীন্দ্রসংগীতের মধ্যে ‘অশ্লীল শব্দ’ ব্যবহার নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা চলছিল। এরইমধ্যে তার বিরুদ্ধে বেলেঘাটা থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে শিক্ষক ঐক্য মুক্ত মঞ্চ নামে একটি সংগঠন।

ব্যতিক্রমী কাজকর্ম আর ব্যঙ্গাত্মক কথাবার্তার কারণে ফেসবুকেও বেশ জনপ্রিয় রোদ্দুর রায়। 

এনডিটিভি জানিয়েছে, রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের বিটি রোড ক্যাম্পাসে ‘বসন্ত উৎসব’ ঘিরে এ বছর বিতর্কের ঝড় ওঠে। সোশ্যাল মিডিয়ায় ওই বিশ্ববিদ্যালয়ে উপস্থিত কিছু তরুণ-তরুণীর ছবি ভাইরাল হয়। তাতে দেখা যায়, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের গানের কথার সঙ্গে ‘অশ্লীল শব্দ’ পিঠে লিখে বসন্ত উৎসবে তারা ঘুরে বেড়াচ্ছেন। ওই ছবি সবার সামনে আসার পর ঘটনার নিন্দায় প্রতিবাদের ঝড় ওঠে।

এর আগে ওইসব ‘অশ্লীল শব্দ’ যোগ করে রবীন্দ্রসংগীত গেয়ে ভাইরাল হন রোদ্দুর রায়। 

রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের এবারের বসন্ত উৎসবে ছবি বিতর্কের পর থেকেই রোদ্দুর রায়ের বিরুদ্ধে বিতর্ক শুরু হয়। অভিযোগ ওঠে, তার গাওয়া গানেই প্রভাবিত হয়ে পিঠে রবীন্দ্র সংগীতের কলির সঙ্গে অশ্লীল শব্দ লিখে বসন্ত উসবে যোগ দেন কিছু শিক্ষার্থী।

শিক্ষক সংগঠনের নেতারা বলেছেন, এই ঘটনা মেনে নেওয়া যায় না। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের গান বিকৃত করতে এমন অশ্লীল শব্দ ব্যবহারের কোনও অধিকার রোদ্দুর রায়ের নেই। প্রয়োজনে পশ্চিমবঙ্গের সব থানায় তার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হবে।

তারা বলেন, এটা অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক যে পুলিশ এই ব্যক্তির বিরুদ্ধে এর আগে কোনও আইনি পদক্ষেপ নেয়নি।

এর আগে রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষও থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে। বিষয়টির তদন্তের জন্যে একটি বিশেষ তদন্ত দল গঠন করেছে কলকাতা পুলিশ।

জেএম/রাতদিন

ভালো লাগলে লাইক দিন।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়েছে

error

নিয়মিত সংবাদের জন্য সাবস্ক্রাইব করুন