https://ratdin.news
শেকড়ের খবর সবার আগে...

লালমনিরহাটে সাহিত্যিকদের মিলনমেলা

সাহিত্যিকদের মিলনমেলায় দিনভর মুখরিত হয়ে উঠলো উত্তরের জেলা লালমনিরহাট। মঙ্গলবার, ১৪ আগস্ট জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার তুষভান্ডার জছির উদ্দিন বিদ্যা নিকেতনে আয়োজিত ‘সাহিত্যিকদের মিলনমেলা’য় জেলার ৫৭ জন সাহিত্যিক অংশগ্রহণ করেন।

দিনের শুরুতে সকাল ৯টায় প্রতিটি উপজেলা থেকে আসা সাহিত্যিকদের বরণের মধ্য দিয়ে  কর্মসূচির শুভ সূচনা হয়। পরে কোরআন তেলাওয়াত ও গীতা পাঠ করা হয়। এসময় জাতীয় শোকদিবসের প্রাক্কালে এ আয়োজনে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। এরপর সম্মিলিতভাবে জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা হয়। পরিচিতি পর্ব শেষে সাহিত্যিকদেরকে উত্তরীয় পরিয়ে দেওয়া হয়।

এরপর খ্যাতিমান কবি শেখ ফজলল করিম কাব্যবিশারদের স্মৃতি বিজড়িত জন্মস্থান পরিদর্শন করেন সাহিত্যিকরা। এসময় কবির উত্তরসূরীদের সাথে মতবিনিময় ও তাঁর মাজার জিয়ারত করেন লালমনিরহাট জেলার এই প্রজন্মের সাহিত্যিকরা।

ছবি: রাতদিন.নিউজ

বিকেলজুড়ে ছিল সাহিত্যিকদের স্বরচিত কবিতা-ছড়া আবৃত্তি। ছিলো স্বরচিত গান পরিবেশনা। এতে জেলার সকল সাহিত্যিকের প্রকাশিত গ্রন্থের প্রদর্শণীরও আয়োজন করা হয়।

বিকেলের আড্ডা চলাকালে এবারের একুশে পদকপ্রাপ্ত ও এই প্রজন্মের বিশিষ্ট কবি অসীম সাহা ভিডিও কলের মাধ্যমে যুক্ত হন মিলনমেলায়। তিনি এই আয়োজনকে সাধুবাদ জানানোর পাশাপাশি এটিকে অব্যহত রাখার আহ্বান জানান। পরবর্তী মিলনমেলায় উপস্থিত থাকারও প্রতিশ্রুতি দেন তিনি।

মিলনমেলার আয়োজক কমিটির আহ্বায়ক আতাউর মালেকের পাশাপাশি মোস্তাক মুকুল, ইরশাদ জামিল, সরমিন হক বীথি, সাবিরা বেগম ডলি, মাজহারুল মোর্শেদ, একে রাসেল, আহেদুল ইসলাম আদেল, আব্দুল্লাহর ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় মিলনমেলাটি সফলভাবে সম্পন্ন হয়।

পুরো অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন জেলার অন্যতম কবি ও রাতদিননিউজের সম্পাদক একেএম মঈনুল হক। তাঁকে সহায়তা করেন জেলার আরেক কবি সরমিন হক বিথী।

অনুষ্ঠান শেষে একটি আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়। গঠিত কমিটি আগামী ৯০ দিনের মধ্যে জেলার সাহিত্যিকদের নিয়ে একটি পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করবেন।

আরআই/রাতদিন

ভালো লাগলে লাইক দিন, শেয়ার করুন।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়েছে