https://ratdin.news
শেকড়ের খবর সবার আগে...

শিক্ষক অবমাননার দায়ে বেরোবির আরেক কর্মচারী বরখাস্ত

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের (বেরোবি) একজন সহকারী অধ্যাপক সম্পর্কে বাজে মন্তব্য করায় ভূগোল ও পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের সেমিনার সহকারী মাসুম খানকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। ওই কর্মচারীর বিরুদ্ধে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক তাবিউর রহমান প্রধান সম্পর্কে প্রকাশ্যে অশালীন মন্তব্য করার অভিযোগ আনা হয়।

বুধবার, ২৮ আগস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার আবু হেনা মুস্তাফা কামাল স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে এ তথ্য জানা গেছে।

এর আগে চলতি মাসের ১ তারিখে গণিত বিভাগের অধ্যাপক আর এম হাফিজুর রহমান সেলিম সম্পর্কে ফেইসবুকে বাজে মন্তব্য করার দায়ে ক্যাফেটেরিয়ার সিনিয়র পিএ কাম কম্পিউটার অপারেটর রবিউল ইসলাম, নিরাপত্তা শাখার নিরাপত্তা প্রহরী নুর-আলম মিয়া এবং রসায়ন বিভাগের ল্যাব এ্যটেনডেন্ট মালেক মিয়াকে সাময়িক বরখাস্ত করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

জানা যায়, মাসুম খান প্রকাশ্য গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক তাবিউর রহমান প্রধানকে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করেন। প্রকাশ্য বক্তব্যে ওই শিক্ষক সম্পর্কে নানা ধরণের বাজে ও মানহানিকর বক্তব্য প্রচার করেন তিনি। এমনকি ওই শিক্ষককে ক্যাম্পাসে অবাঞ্চিত ঘোষণা করেন মাসুম খান।

এ প্রেক্ষিতে, সরকারী কর্মচারী ( শৃঙ্খলা ও আপিল) বিধিমালা ২০১৮ অনুযায়ী মাসুম খানকে চাকুরী হতে সাময়িক বরখাস্ত করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

বরখাস্তের এই আদেশ ২৮ আগস্ট অপরাহ্ন হতে কার্যকর হবে বলেও ওই প্রজ্ঞাপনে জানানো হয়।

এ বিষয়ে বরখাস্তকৃত কর্মচারী মাসুম খান জানান, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন তদন্ত কমিটি গঠন না করে শোকজের জবাবের পরের দিনই আমাকে বরখাস্ত করে।

সাময়িক বরখাস্তের কোনো চিঠিও পাননি বলে জানান তিনি।

ভালো লাগলে লাইক দিন, শেয়ার করুন।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়েছে