সংস্কারের নামে সড়কে থাবা, তিনবিঘা করিডোরে বিএসএফকে রুখে দিয়েছে বিজিবি

0

বহুল আলোচিত তিনবিঘা করিডোরে সৌন্দর্য বর্ধনের কথা বলে সড়কের দুই দিকে অবকাঠামো নির্মা ন করে সড়কের প্রস্থ কমিয়ে ফেলার চেষ্টায় বাধা দিয়েছে স্থানীয় জনগন ও বিজিবি। তাদের বাধার মুখে আপাতত নির্মানকাজ বন্ধ রেখেছে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ।

স্থানীয় জনগন ও প্রশাসনের বাধার মুখে আজ বুধবার, ০৮ সেপ্টেম্বর সকাল সাড়ে ৯ টায় সড়ক সংস্কারের এই কাজ বন্ধ করে ভারত।

লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার আলোচিত দহগ্রাম ইউনিয়নের জনসাধারন দেশের মূল ভূখন্ডের সাথে যোগাযোগের জন্য দীর্ঘদিন থেকে এই তিনবিঘা করিডোর ব্যবহার করে আসছে। দহগ্রাম ইউনিয়নের বাসিন্দাদের সেই চলাচলের একমাত্র সড়ক তিনবিঘা করিডোর সংস্কারের নামে সংকুচিত করতে থাকে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ।

সড়কটির দুই পাশ ঘেষে ৩ ফুট দেয়াল নির্মাণ করতে গত তিনদিন থেকে ১০ ফুট গর্ত করে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ। ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) নিয়ন্ত্রাণাধীন সড়কটি ঘিরে দেয়াল নির্মাণের জন্য লোহার ফর্মাও বসানো হয়।

সড়কটি সংস্কার করে সৌন্দর্য্য বর্ধন করা হবে বলে বিএসএফ’র পক্ষ থেকে বিজিবিকে জানিয়ে এই কাজ শুরু করে ভারত। পরে একপর্যায়ে স্থানীয় বাসিন্দা ও বিজিবি বুঝতে পারে সংস্কার ও সৌন্দর্য্য বর্ধনের নামে মূলত সড়কটি সংকুচিত করা হচ্ছে।

কাজের ধরণ সন্দেহ জনক হওয়ায় স্থানীয় জনসাধারণ, জনপ্রতিনিধি ও বিজিবি আজ বুধবার, ০৮ সেপ্টেম্বর সকাল সাড়ে ৯ টায় সড়ক সংস্কার কাজে বাঁধা দেয়। বিএসএফ বাঁধা না মেনে নির্মাণাকাজ অব্যহত রাখার চেষ্টা চালালে বিজিবি তা রুখে দেয়। পরে উভয় বাহিনীর কম্পানি কমান্ডার ঘটনাস্থলে আলোচনা করে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে ঘটনা জানায় ও কাজ বন্ধ রাখে।

বিজিবি’ সূত্রে জানা গেছে, ১৭৮ মিটার দৈর্ঘ্য ও ৮৫ মিটার প্রস্থ্যের ভারতীয় এ তিনবিঘা করিডোর সড়কটি ২৪ ঘন্টা ব্যবহারের জন্য গত ২০১১ সালের ১৯ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভারত সরকারের সাথে আলোচনা করে খুলে দেন। সে থেকে একটানা সড়কটি ব্যবহার করছে বাংলাদেশের জনসাধারণ।

গত এক সপ্তাহ আগে তিনবিঘা করিডোর ভারতীয় অংশে নির্মাণ কাজের জন্য সামগ্রী মজুদ করলে বিজিবি এ বিষয়ে জানতে চায়। জবাবে বিএসএফ জানায়, ‘উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে সড়কটি সংস্কার ও সৌন্দর্য্য বর্ধণের কাজ করা হবে। সাধারণ মানুষের চলাচলে কোনো সমস্যা হবে না।’

এর পরের দুই দিনে সড়কের প্রায় অর্ধেক অংশে গর্ত করা হয়। করিডোর সড়কের পূর্ব- দক্ষিণ দিকে লোহার ফর্মা বসিয়ে ৩ ফুট উচু দেয়াল নির্মাণ শুরু করে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ।

এভাবে দেয়াল নির্মানের ফলে রাস্তা সংকুচিত হয়ে পড়বে, বাংলাদেশি জনসাধারণ ও যানবাহন চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি হতে পারে বিবেচনায় আজ সকালে কাজে বাঁধা দেয় বর্ডার গার্ড (বিজিবি)। এরপরও বিএসএফ কাজ করার জন্য নির্মাণ সংশ্লিষ্ট ভারতীয় লোকজনদের নির্দেশ দেয়। এতে দায়িত্বরত বিজিবি’র সদস্যরা তীব্র প্রতিবাদ জানায়। এসময় সাময়িক উত্তেজনার সৃষ্টি হয়।

পরে ঘটনাস্থলে ভারতীয় ৪৫ রানীনগর বিএসএফ ব্যাটালিয়নের তিনবিঘা ক্যাম্পের কম্পানি কমান্ডার বিকাশ রায় ও বাংলাদেশের ৫১ বিজিবি ব্যাটালিয়নের পানবাড়ি কম্পানি কমান্ডার জাহাবুল ইসলাম সংশ্লিষ্ট সদস্যদের নিয়ে আলোচনা করেন। পরে কাজ বন্ধে একমত হন।

দহগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কামাল হোসেন প্রধান বলেন, ‘মঙ্গলবার রাতে দেখি তারা রাস্তার পাশে নাকি ৩ ফুট দেয়াল দিবে- এতে তো মানুষের চলাচলে সমস্যা হবে। ইউনিয়নের লোকজন, বিজিবিসহ নির্মাণ কাজ বন্ধে বাঁধা দেই।’

৫১ বিজিবি (বর্ডারগার্ড বাংলাদেশ) ব্যাটালিয়নের পানবাড়ি ক্যাম্পের কম্পানি কমান্ডার সুবেদার জাহাবুল ইসলাম বলেন, ‘আমাদের বাধার মুখে কাজ বন্ধ রয়েছে। কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত সাপেক্ষে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জেএম/রাতদিন

লাইক দিয়ে সাথে থাকুন
মতামত দিন