https://ratdin.news
শেকড়ের খবর সবার আগে...

সদ্যজাত কন্যা সন্তানকে হত্যা করে ডোবায় ফেললেন বাবা!

সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে ৯ মাসের মেয়েকে হত্যার পর তার লাশ ডোবায় ফেলে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে বাবার বিরুদ্ধে। দ্বিতীয় দফায় কন্যাসন্তান জন্ম হওয়ায় ‘ক্ষোভে’ ওই ব্যক্তি এ ঘটনা ঘটিয়েছেন বলে পুলিশ জানায়। নিহত সুমাইয়া খাতুন ওই এলাকার তাঁত শ্রমিক বদিউজ্জামানের মেয়ে।

আজ শুক্রবার, ১৩ সেপ্টেম্বর সকালে উপজেলার মুকন্দগাঁতি এলাকার একটি ডোবা থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয় বলে বেলকুচি থানার ওসি আনোয়ারুল ইসলাম জানান।

পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, ‘সাত বছর আগে তাঁত শ্রমিক বদিউজ্জামানের সঙ্গে পাবনার চাটমোহরের মির্জাপুর গ্রামের সিকেন্দার আলীর মেয়ে সুন্দরী খাতুনের বিয়ে হয়। কয়েক বছর আগে তাদের সংসারে একটি মেয়ে সন্তানের জন্ম হয়। এ নিয়ে তাদের সংসারে কলহ চলছিল। এরপর একটি ছেলে সন্তানের আশা করলেও বদিউজ্জামান ও সুন্দরীর সংসারে ৯ মাস পর আবারো মেয়ে সন্তানের জন্ম হয়। এ কারণে প্রায়ই বদিউজ্জামান প্রায়ই স্ত্রীকে মারধর এবং সন্তানকে হত্যার হুমকি দিতো। এর জেরে মেয়েকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর বাড়ির পাশের ডোবায় ফেলে দেয় সে।’

ঘটনার পর থেকে বদিউজ্জামান পলাতক রয়েছেন। তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলে জানান ওসি।

এবি/রাতদিন

ভালো লাগলে লাইক দিন, শেয়ার করুন।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়েছে