আদিতমারীতে আ.লীগের সংঘর্ষ, ছাত্রলীগ সম্পাদকসহ আহত ১৫

লালমনিরহাটের আদিতমারীতে আওয়ামী লীগের দুই দলের মধ্যে সংঘর্ষে পুলিশসহ অন্তত ২০ জন আহত হয়েছে। এ সময় কমপক্ষে ১০টি মোটরসাইকেল ভাংচুর করা হয়। উপজেলা নির্বাচনের মনোনয়ন নিয়ে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে বলে তাৎক্ষনিকভাবে জানিয়েছে দলীয় সূত্র ও পুলিশ।   

জানাগেছে,আদিতমারী উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও সাপ্টিবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদ  চেয়ারম্যান রফিকুল আলমকে প্রথম দফা নির্বাচনের জন্য দলীয় মনোনয়ন দেয় আওয়ালীগ।

তবে বিষয়টি নিয়ে শনিবার থেকেই বিক্ষুদ্ধ ছিল জেলা আ.লীগের সিনিয়র সহসভাপতি সিরাজুল হক এবং উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি শওকত আলীর ভাতিজা ইমরুল কায়েস ফারুকের পক্ষের নেতাকর্মীরা।

এই অবস্থায় রোববার, ১০ ফেব্রুয়ারি রফিকুল আলমকে  স্বাগত জানাতে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে তার সমর্থকরা বেশকিছু মোটরসাইকেল নিয়ে গঙ্গাচড়া শেখ হাসিনা সেতুর দিকে যাচ্ছিল। এ সময় আদিতমারী আওয়ামীলীগ অফিসের সামনে ওই বহরকে বাধা দেয় বিক্ষুদ্ধরা। এতে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায়। মনোনয়ন নিয়ে রফিকুল আলম ঢাকা থেকে ফিরছিলেন।  

সংঘর্ষে অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। এসময় অন্তত ১২টি মোটরসাইকেল ভাংচুর করেছে মনোনয়ন বঞ্চিতদের লোকজন। আহত তিনজনকে পাঠানো হয়েছে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে।

এদিকে এ ঘটনায় উপজেলা ছাত্রলীগের সম্পাদক মাইদুল বাবুও আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

পরে পুলিশ টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

আদিতমারী থানার ওসি মাসুদ রানা বলেন, ‘পরিস্থিতি এখন শান্ত রয়েছে’।

এবি/১০.০২.১৯

লাইক দিয়ে সাথে থাকুন