আমিরাতে ঐতিহাসিক সফরে পোপ

আবুধাবিতে তিন দিনের সফরে শেষে মঙ্গলবার, ৫ ফেব্রুয়ারি রোমে ফিরছেন পোপ ফ্রান্সিস।

এর আগে গত রোববার রাতে সংযুক্ত আবর আমিরাতের(ইউএই) আবুধাবিতে পৌঁছান তিনি। বিমানবন্দরে তাঁকে স্বাগত জানান কায়রোর আল আজহার মসজিদের ইমাম শেখ আহমেদ আল তায়েব। এ সময় সেখানে ছিলেন ইউএইর ক্রাউন প্রিন্স শেখ মোহাম্মদ বিন জায়েদ আল নাহিয়ান।

আরব উপসাগরে কোনো পোপের এটিই প্রথম সফর।

বিমানবন্দরে পোপ ফ্রান্সিস বলেন, মুসলমানদের একজন ভাই হিসেবে তিনি এখানে এসেছেন। শান্তির পথে একসঙ্গে চলা এবং একসঙ্গে আলোচনার নতুন অধ্যায় সৃষ্টির উদ্দেশ্য নিয়ে তিনি এসেছেন।

বিমানবন্দর থেকে তাঁকে প্রেসিডেন্ট প্রাসাদে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান তাঁকে সামরিক কুচকাওয়াজে সম্মান জানানো হয়। ২১ বার তোপধ্বনি দেওয়া হয় এবং আকাশে যুদ্ধবিমানে ভ্যাটিকান সিটির পতাকার রং সাদা ও হলুদ রং ছড়িয়ে রেখা তৈরি করা হয়।

সফরে পোপ ফ্রান্সিস ক্রাউন প্রিন্স শেখ মোহাম্মদ বিন জায়েদ আল নাহিয়ানের সঙ্গে বৈঠক করবেন।

বৈঠকে তিনি ইয়েমেনের গৃহযুদ্ধের বিষয় নিয়ে আলোচনা করবেন বলে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে।

পোপের সফর উপলক্ষে আরব আমিরাতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী টুইটারে লিখেছেন, ‘পোপের এই সফরের মানবিক মূল্য অনেক। এ ছাড়া এই সফরের মাধ্যমে আরব আমিরাতের ইতিহাসে সহমর্মিতা ও ধৈর্যের এক নতুন অধ্যায় তৈরি হবে।’

পোপ ফ্রান্সিস রোমে ফিরে যাওয়ার আগে মঙ্গলবার, ৫ ফেব্রুয়ারি আবুধাবি স্টেডিয়ামে খ্রিস্ট ধর্মাবলম্বীদের সমাবেশে বক্তব্য করবেন।

মুসলমান সংখ্যাগরিষ্ঠ সংযুক্ত আরব আমিরাতে  প্রায় ১০ লাখ খ্রিস্ট ধর্মাবলম্বী বসবাস করেন।

এবি/০৫.০২.১৯

লাইক দিয়ে সাথে থাকুন