কবিতায় অশ্লীলতা, বিতর্কের ঝড়ে কবীর সুমন

প্রেম চাই- আছে তার গান। ক্লান্তি মুছিয়ে দিতে কাউকে চাওয়ার আহ্বান- আছে তার গান। অন্যায়ের প্রতিবাদ করা চাই- সেখানেও তার গানের দুর্দান্ত মুখরতা। তিনি এমনই; সবখানেই তাকে পাওয়া যায় গানে গানে। সেজন্যই সময়-কাল জয় করে অমরত্বের প্রত্যাশা না করেও অমরত্বের পথিক আজ কবীর সুমন।

অসম্ভব প্রিয় এক নাম- কবীর সুমন! এপার-ওপার দুই বাংলায়ই তিনি জয় করেছেন কয়েক প্রজন্মের শ্রোতার অন্তর। নিজেকে ক্ষ্যাপা বুড়ো বলে আখ্যায়িত করেই যেন শ্রোতাদের আরও বেশি করে কাছের হয়ে গেলেন তিনি।

সেই গুণী মানুষটি তোপের মুখে পড়লেন ফেসবুকে এক কবিতা লিখে। ভারতের পশ্চিমবঙ্গে ইতোমধ্যে সমালোচনার ঝড় উঠেছে কবীর সুমনের বিরুদ্ধে। সবার অভিযোগ, তিনি ‘অশ্লীল’ লেখা পোস্ট করেছেন। কেউ কেউ তো এমনও বলছেন, তার মস্তিষ্ক বিকৃত হয়ে গেছে!

প্রখ্যাত এই সংগীতজ্ঞ ফেসবুকে সম্প্রতি একটি কবিতা পোস্ট করেন। যেটা ‘পূর্বা’ নামের একজনের উদ্দেশ্যে লেখা। তার সঙ্গে কবি নিজের একান্ত অন্তরঙ্গ কিছু মুহূর্তের কথা লেখায় তুলে ধরেছেন।

তবে লেখার মধ্যে ‘পূর্বাপূর্ব খেলা’, ‘স্বমেহন শীৎকার’-এর মতো শব্দ রয়েছে। এমনকি নিজের শরীরের বিশেষ অঙ্গ নিয়েও ইঙ্গিতপূর্ণ বাক্য লিখেছেন কবীর সুমন। এসব নিয়ে চলছে বিতর্কের ঝড়।

থামার পাত্র নন কবীর সুমন। ওই কবিতার পর আরও কয়েকটি লেখা পোস্ট করেছেন তিনি। সবগুলোতেই এমন ইঙ্গিত বজায় রেখেছেন। যার ফলে এগুলোকে ‘চূড়ান্ত অশ্লীল’ বলেও আখ্যা দিচ্ছেন অনেকে।

কলকাতার সাহিত্যিক সঙ্গীতা বন্দ্যোপাধ্যায়সহ সৃজিত মুখার্জি, অভিনেতা রাহুল অরুণোদয় বন্দ্যোপাধ্যায়, সুদীপ্তা চক্রবর্তী, প্রণতি ঠাকুররা সমালোচনা করেছেন কবীর সুমনের। সমালোচনার মুখে ওই কবিতা ফেসবুক থেকে ডিলিট করে দিলেও পরবর্তীতে আরও কয়েকটি কবিতা পোস্ট করে নিজের পক্ষেই যেন দাঁড়ালেন কবীর সুমন।

সাথে থাকুন...
error1