দেশের প্রথম মসজিদ ও ইসলাম ধর্মের আবির্ভাব লালমনিরহাটে!

মহানবী (সা:) এর জন্মগ্রহনের ৫০ বছর পর বাংলাদেশে প্রথম ইসলাম ধর্মের আবির্ভাব হয় লালমনিরহাট জেলায়, ৬২০ খ্রিষ্টাব্দে। দেশের প্রথম মসজিদটিও নির্মিত হয় এই জেলার পঞ্চগ্রাম ইউনিয়নের ‘মজেদের আড়া’ নামক গ্রামে, ৬৯০ খ্রিষ্টাব্দে।  বিভিন্ন গবেষণা ও প্রাপ্ত শিলালিপি থেকে এমন তথ্যই জানা গেছে।

১৯৮৭ সালে পঞ্চগ্রামে জঙ্গল খননের সময় প্রাচীন মসজিদের ধ্বংসাবশেষ আবিষ্কৃত হয়। এর একটি ইটে কালেমা তাইয়্যেবা ও ৬৯ হিজরী লেখা রয়েছে।এ’ থেকে অনুমান করা যায় যে, মসজিদটি হিজরী ৬৯ অর্থাৎ ৬৯০ খ্রিষ্টাব্দের দিকে স্থাপন কিংবা সংস্কার করা হয়।

‘হারানো মসজিদ’র উপর গড়ে তোলা নতুন মসজিদ। ছবিঃ রাতদিন.নিউজ

রংপুর জেলার ইতিহাস থেকে জানা যায়, রাসুল (সাঃ) এর মামা, বিবি আমেনার চাচাতো ভাই আবু ওয়াক্কাস (রাঃ) ৬২০ থেকে ৬২৬ খ্রিষ্টাব্দ পর্যন্ত বাংলাদেশে ইসলাম প্রচার করেন (পৃ:১২৬)। অনেকে অনুমান করেন, পঞ্চগ্রামের মসজিদটি তিনি নির্মান করেন যা ৬৯০ খ্রিষ্টাব্দে সংস্কার করা হয়।

দেশের প্রথম ও প্রাচীন এই মসজিদটি উত্তর- দক্ষিনে ২১ ফুট ও প্রস্থ ১০ ফুট। মসজিদের ভিতরে রয়েছে একটি কাতারের জন্য ৪ ফুট প্রস্থ জায়গা। মসজিদের চারকোনে রয়েছে অষ্টকোণ বিশিষ্ট স্তম্ভ। ধ্বংসাবশেষ থেকে মসজিদের চূড়া ও গম্বুজ পাওয়া গেছে।

মতিউর রহমান বসুনিয়া রচিত ‘রংপুরে দ্বীনি দাওয়াত’ গ্রন্থেও এ’ মসজিদের বিশদ বিবরন রয়েছে।

মসজিদের ধ্বংসস্তুপ মাঝখানে রেখে গড়ে তোলা হয়েছে নতুন ‘হারানো মসজিদ’।

‘দেশে ইসলাম প্রচার করেন ইখতিয়ার উদ্দিন মোহাম্মদ বিন খিলজী’ এমন একটি ধারণা প্রতিষ্ঠিত থাকলেও এসব তথ্য প্রমান করে যে, এর অনেক আগেই এদেশে ইসলাম প্রচারিত হয়। ১২০৪ খ্রিষ্টাব্দে ইখতিয়ার উদ্দিন মোহাম্মদ বিন খিলজীর বাংলা বিজয়ের প্রায় ৬০০ বছর আগেই সাহাবীদের দ্বারা বাংলাদেশে ইসলাম ধর্মের আবির্ভাব হয়। প্রথম মসজিদও নির্মিত হয় সেই সময়েই।

আরআই/১৪.০১.২০১৯

লাইক দিয়ে সাথে থাকুন
মতামত দিন