পুড়ে কয়লা হওয়া মরদেহ শনাক্ত হবে ডিএনএ পরীক্ষায়

রাজধানীর চকবাজারে অগ্নিকান্ডের ঘটনায় উদ্ধার করা বেশ কিছু মরদেহ পুড়ে কয়লা হয়ে গেছে। তাদের দেখে শনাক্ত করা যাচ্ছে না।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের প্রধান সোহেল মাহমুদ এ তথ্য জানিয়ে বলেন, যেসব মরদেহ পুড়ে গেছে, কিন্তু চেহারা দেখে শনাক্ত করা যায়, সেগুলোর ময়নাতদন্ত করে আজকেই (বৃহস্পতিবার) স্বজনদের হাতে হস্তান্তর করা হবে।

তিনি জানান, যাদের দেহ পুড়ে কয়লা হয়ে গেছে, শনাক্ত করার জন্য তাদের ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করা হবে। ফলে এ ক্ষেত্রে কিছুটা সময় লাগতে পারে।

বৃহস্পতিবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ঢাকা মেডিকেল কলেজের মর্গের সামনে সোহেল মাহমুদ সাংবাদিকদের বলেন, এই মর্গে এখন পর্যন্ত মোট ৬৭টি মরদেহ আনা হয়েছে। এর মধ্যে কিছু মরদেহ আছে, যেগুলো পুড়ে গেছে কিন্তু চেহারা শনাক্ত করা যাবে। কিছু মরদেহ পুড়ে কয়লা হয়ে গেছে। চেহারা দেখে বা ফিঙ্গারপ্রিন্টে শনাক্ত করা সম্ভব নয়। তাদের জন্য ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করতে হবে।

তিনি জানান, তাঁরা কয়েকটি ইউনিটে ভাগ হয়ে কাজ করছেন বলে তাঁদের কাজের ক্ষেত্রে খুব বেশি সমস্যা হবে না।

বুধবার, ২০ ফেব্রুয়ারি রাত ১০টা ১০ মিনিটে চকবাজার এলাকার নন্দকুমার দত্ত সড়কের চুরিহাট্টা মসজিদ গলির রাজ্জাক ভবনে আগুন লাগে। রাত পৌনে একটার দিকে পাশের কয়েকটি ভবনে আগুন ছড়িয়ে পড়ে।

চকবাজার এলাকার গ্যাস লাইন থেকেও ওই সময় আগুন বের হচ্ছিল। অগ্নিকাণ্ডের পর ওই এলাকার বিদ্যুৎ-সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, রাজ্জাক ভবনের নিচতলায় রাসায়নিক দ্রব্যের কারখানা ছিল।সূত্র : বাংলারিপোর্ট

এইচএ/রাতদিন

লাইক দিয়ে সাথে থাকুন