বাবার অভিযোগ, ছেলের কারাদন্ড

বাবা-মা কিংবা পরিবারের অন্য লোকজন। কাউকেই সহ্য হতো না তার। প্রায় সময়ই তাদের করতো মারপিট, নির্যাতন। নানা ভাবে বুঝিয়েও কোনো কাজ হয়নি। উল্টো দিন যতই যায় খারাপ আচরণের মাত্রা ততই যেন বাড়ছিল।

এক সময় বাবা বাধ্য হয়ে ছেলের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ তুলে প্রতিকারের আশায় আবেদন করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার(ইউএনও) কাছে। ফলে ইউএনও পুলিশ পাঠিয়ে তাকে ধরে এনে ভ্রাম্যমান আদালতে মুখোমুখি করেন। এসময় সে নিজের দোষ স্বীকার করলে আদালত ছয় মাসের কারাদন্ড প্রদান করেন।

সে মাদকাসক্ত বলে জানা গেছে। মূলত মাদকসেবী হওয়ায় পরিবারের লোকজনের সাথে বিরূপ আচরণ করতো বলে বলছে পুলিশ।

ওই যুবকের নাম শাফিউল হক শাকিল। ৩২ বছর বয়সী ওই যুবক লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার খালিশা বারাজন গ্রামের এনামুল হকের ছেলে।

এ সম্পর্কিত আরও খবর...

শনিবার, ৫ জানুয়ারি বিকেলে ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক ও কালীগঞ্জের ইউএনও রবিউল হাসান এ দণ্ড দেন।

কালীগঞ্জ থানার এসআই বাদল কুমার মণ্ডল  দন্ডপ্রাপ্তের পরিবারের উদ্ধৃতি দিয়ে সংবাদ মাধ্যমকে জানান, প্রায় সময় মাদকসেবন করে বাবা-মাসহ বাড়ির সবার সঙ্গে খারাপ আচরণসহ মারপিট করতো শাকিল। এতে অতিষ্ট হয়ে ইউএনও বরাবরে ছেলের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেছিলেন তার বাবা।

কালীগঞ্জ থানার ওসি মকবুল হোসেন জানিয়েছেন, দণ্ডপ্রাপ্ত শাকিলকে লালমনিরহাট কারাগারে পাঠানো হবে।

এইচএ/০৫.০১.১৯

সাথে থাকুন...
মতামত দিন