রংপুরে চিকিৎসাসেবায় ‘দালালি’, গ্রেফতার ১৭

রংপুর নগরীর মেডিকেল মোড় ও ধাপ এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১৭ ‘দালালকে’ গ্রেফতার করেছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) । বিভিন্ন চিকিৎসকের চেম্বার, ক্লিনিক, হাসপাতাল ও ডায়গনস্টিক সেন্টার থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়

সূত্র মতে, গ্রেফতারকৃতরা বিভিন্ন এলাকা থেকে রংপুরে চিকিৎসা নিতে আসা অসহায় রোগীদের নানাভাবে বিভ্রান্ত করতো। নানা প্রলোভনে এসব দালাল নিজেদের পছন্দের চিকিৎসা কেন্দ্রে নিয়ে যেত রোগীদের। বিনিময়ে কতিপয় চিকিৎসক, ক্লিনিক, হাসপাতাল ও ডায়গোনস্টিক সেন্টার থেকে কমিশন পেত গ্রেফতারকৃতরা।

রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের সহকারি পুলিশ কমিশনার মোঃ আলতাফ হোসেন জানান, নিয়মিত অভিযানের অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার, ২৪ জানুয়ারি বিকেল থেকে নগরীর ধাপ এলাকায় অবস্থান নেয় ডিবি পুলিশের একটি দল।

পরে দীর্ঘসময় পর্যবেক্ষণের পর দালালদের হাতেনাতে গ্রেফতার করা হয় বলে জানিয়েছেন পুলিশের ওই কর্মকর্তা।

গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছে নগরীর উত্তম বানিয়াপাড়ার জনাব আলীর ছেলে জুয়েল রানা, ধাপ জেল রোডের রমজান আলীর ছেলে নুরুন্নবী, সামছুল হকের ছেলে হামিদুল হক ও সাহাবুদ্দিনের ছেলে সামছুল হক।

ধাপ ভগিলেনের মাহবুবার রহমানের ছেলে খোরশেদ আলম, ধাপ শিমুলবাগ এলাকার মোনাব্বর আলীর ছেলে জোনাব আলী, আবেদ আলীর ছেলে মনিরুজ্জামান মনু ও আজম আলীর ছেলে গোলাম মোস্তফা ওরুফে গোলাপ।

হরিরামপুরের বাচ্চা মিয়ার ছেলে লাভলু মিয়া ও তফেল মিয়ার ছেলে আব্দুল মোন্নাফ, পান্ডার দিঘী এলাকার হযরত আলীর ছেলে আরিফুল ইসলাম ও জসিমুদ্দিনের ছেলে আইয়ুব আলী।

হাছনা বাজার পূর্ব গীলাবাড়ীর গোলাম মোস্তফার ছেলে মোজাফফর হোসেন, উত্তম বাওয়াইপাড়া খলিলুর রহমান মন্টুর ছেলে নূরে আলম ওরুফে দুলাল, চড়াই খোলা বসুনিয়াপাড়ার শাহাদৎ হোসেনের ছেলে মহিদুল ইসলাম, খলিফাপাড়ার তাজেমের ছেলে আলাউদ্দিন ওরুফে আলাল এবং খটখটিয়া ঘোলাপাড়ার আবুল কাশেমের ছেলে হাসু মিয়া।

ডিবির এসআই আশিকুন নবী খন্দকার বাদি হয়ে তাদের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

এইচএ/২৫.০১.১৯

লাইক দিয়ে সাথে থাকুন