লালমনিরহাটে প্রভাষকের বিরুদ্ধে ‘প্রতারণা’ মামলা

জাল সনদে চাকুরীর অভিযোগে লালমনিরহাটের বড়বাড়ি শহীদ আবুল কাশেম মহাবিদ্যালয়ের প্রভাষক শাহানা পারভীনের বিরুদ্ধে প্রতারণার মামলা করা হয়েছে। বৃহষ্পতিবার, ২১ ফেব্রুয়ারি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মরতুজা হোসেন বাদী হয়ে লালমনিরহাট সদর থানায় এ মামলা দায়ের করেন।

এজাহার সূত্রে জানা যায়, শাহানা পারভীন ২০০৯ সালের ৯ জুলাই ইতিহাস বিভাগের প্রভাষক হিসেবে ওই কলেজে যোগ দেন। যোগদানকালে তিনি যে নিবন্ধন পরীক্ষার সনদ জমা দেন তাতে রোল ২২০৮০৫১২ ও রেজি. নং ৬১৭৩৫৭১ উল্লেখ করা হয়েছে। তিনি ২০১০ সালে এমপিওভুক্ত হন।

শিক্ষক নিবন্ধন সনদটি জাল শনাক্ত হওয়ায় তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে ২০১৮ সালের ১১ অক্টোবর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অঞ্চল রংপুরের উপ-পরিচালক বরাবর চিঠি দেন শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষের (এনটিআরসিএ) সহকারী পরিচালক মোস্তাক আহমেদ।

ওই চিঠির প্রেক্ষিতে গত বছরের ২৫ অক্টোবর অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা করতে নির্দেশনা দিয়ে কলেজ কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তর রংপুর অঞ্চলের উপ-পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) আখতারুজ্জামান।

এই অবস্থায় অভিযুক্ত প্রভাষক শাহানা পারভীনের বেতন-ভাতা স্থগিত করে তিন দিনের মধ্যে শিক্ষক নিবন্ধন সনদের মূল কপি কলেজ অফিসে জমা দেওয়ার নির্দেশ দেন অধ্যক্ষের দায়িত্ব থাকা উপাধ্যক্ষ মরতুজা হোসেন।

তবে দীর্ঘ সময়ে ওই শিক্ষক চিঠির উত্তর না দেয়ায় আখতারুজ্জামান প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহনের নির্দেশনা দেন কলেজ কর্তৃপক্ষকে।

এরই প্রেক্ষিতে মামলাটি দায়ের করা হয়। পুলিশ মামলাটি নথিভুক্ত করে সিআইডিকে হস্তান্তর করেছে।

মামলার বাদী মরতুজা হোসেন রাতদিননিউজকে বলেন, ‘জালিয়াতির মাধ্যমে প্রায় ১৯ লাখ টাকার মতো বেতন-ভাতা উত্তোলন করা হয়েছে ইতোমধ্যে। আর কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা পেয়েই মামলা দায়ের করা হয়েছে ওই প্রভাষকের বিরুদ্ধে।’

লালমনিরহাট সদর থানার ওসি মাহফুজ আলম মামলা দায়েরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

আরই/রাতদিন

লাইক দিয়ে সাথে থাকুন