শিশুর মনসিক চাপ বাড়াচ্ছে ফেসবুক

আধুনিক বিশ্বে সোশ্যাল নেটওয়াকিং সাইট-ফেসবুক যেমন একটি জনপ্রিয় মাধ্যম তেমনি ক্ষতিকারকও এটি। ফেসবুক ব্যবহারকারী দিন দিন যেমন বৃদ্ধি পাচ্ছে তেমনি বাড়ছে ক্ষতির পরিমানও। আর এই ক্ষতির একটি বড় অংশের শিকার হচ্ছে শিশুরা।

এক গবেষনায় বলা হয়েছে যে, যদি একটি শিশু প্রতিদিন ২ ঘন্টারও বেশি সময় ফেসবুকে ব্যয় করে তাহলে শিশুটির মানসিক বিকাশ বাধাগ্রস্থ হওয়ার ঝুঁকি রয়েছ।

কানাডার ‘অটোয়া পাবলিক হেলথ’ এর এক গবেষণায় বলা হয়েছে, ফেসবুকের কারণে মানসিক চাপ বৃদ্ধি ও আত্মহত্যার প্রবণতাও বৃদ্ধি পায়।

সাইবারসাইকোলজি, বিহেইভিয়ার অ্যান্ড সোশাল নেটওয়ার্কিং জার্নালে এই গবেষণা প্রকাশিত হয়। এতে ‘অনটারিও স্টুডেন্ট ড্রাগ ইউজ অ্যান্ড হেলথ সার্ভে’য়ের সপ্তম থেকে দ্বাদশ গ্রেডের শিক্ষার্থীদের তথ্য পর্যবেক্ষণ করা হয়।

গবেষণায় দেখা যায়, দৈনিক দেড় শতাংশ শিক্ষার্থী ২ ঘণ্টারও বেশি সময় ব্যয় করে সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে।

গবেষণায় প্রকাশিত শিশুর ফেসবুক ব্যবহারের এই ফলাফল বাবা-মায়ের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এজন্য ওয়েবসাইটগুলোতে মানসিক স্বাস্থ্যসেবা বাড়ানোর উদ্যোগের পরামর্শও দেন তিনি।

এনএইচ/রাতদিন

লাইক দিয়ে সাথে থাকুন