হায় কম্বল! হায় লেবু!!

প্রতীকি ছবি
0

দুর্গম চরাঞ্চল উত্তর রথিদেব। কুড়িগ্রাম উপজেলার উলিপুর উপজেলার ভৌগলিক সীমানায় পড়েছে এলাকাটি। উত্তরের বিভিন্ন জেলার মতো এখন সেখানেও কনকনে শীত, হিমেল বাতাস।

চরের প্রান্তিক কৃষক আমিনুল ইসলাম রোববার, ৬ জানুয়ারি গিয়েছিলেন গ্রামের হাটে। বাজার-সদাই শেষে বাড়ি ফেরার সময় কিনেছিলেন একটি সস্তা দামের কম্বল। ষাট বছর বয়সী মায়ের জন্য।  

মায়ের জন্য আনা সেই ‘উষ্ণতা’ বাড়িতে পৌঁছতে না পৌঁছতেই তা যেন হয়ে ওঠে ‘উত্তপ্ত’। কম্বল দেখে তেলেবেগুনে জ্বলে ওঠেন স্ত্রী লেবু বেগম(৩০)। শুরু হয় স্বামী-স্ত্রী বাকবিতন্ডা।

আর এরই জেরে সোমবার, ৭ জানুয়ারি ভোরের দিকে আত্মহত্যা করেন লেবু। যখন বাড়ির সকলেই ছিল গভীর ঘুমে।

যুগান্তর অনলাইনে প্রকাশিত খবরে বলা হয়, বছর দশেক আগে আমিনুল ইসলামের সঙ্গে বিয়ে হয়েছিল চিলমারী উপজেলার রানীগঞ্জ ইউনিয়নের উত্তর খামার এলাকার এবলাস উদ্দিনের মেয়ে লেবু বেগমের। তাদের সংসারে লাবিকা খাতুন নামের ৯ বছর বয়সী একটি মেয়ে আছে।

উলিপুর থানার ওসি (তদন্ত) আনোয়ারুল ইসলামকে উদ্ধৃত করে প্রকাশিত খবরে বলা হয়, এ ঘটনায় অপমৃত্যু মামলা দায়েরের পর মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। তবে সেটি হত্যা না আত্নহত্যা তা ময়নাত্দন্তের পরই জানা যাবে।

এএইএ/০৭.০১.১৯

লাইক দিয়ে সাথে থাকুন
মতামত দিন