১৩ বস্তা টাকার মালিক ভিক্ষুক!

সাজেদা বেগম, বয়স ৭২ বছর। ‘পেশায়’ ভিক্ষুক । বুধবার, ১৩ মার্চ ১৩টি বস্তায় ভর্তি ৭৬ হাজার টাকা এবং ৮৮ কেজি কয়েন তার ঘর থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়, বর্তমানে থানা হেফাজতে রয়েছে উদ্ধার হওয়া ৭৬ হাজার টাকা এবং ৮৮ কেজি কয়েন

জানা যায়, খবর ছড়িয়ে পড়ে রাজধানীর দক্ষিণ মান্ডায় এলাকার জাকির হোসেনের বাড়িতে ‘গুপ্তধন’ পাওয়া গেছে ।

এমন খবরে কৌতূহলী মানুষ ওই বাসার চারপাশে প্রচন্ড ভিড় করে । পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে বাড়িটি নিয়ন্ত্রনে নেয় ।

বাড়িটির মালিক জাকির হোসেন বলেন, ‘মাস তিন আগে ৪ হাজার টাকায় দুই রুম ভাড়া নেন বৃদ্ধা সাজেদা ও তার মেয়ে আমেনা ।তিনি কুড়িয়ে আনা প্লাস্টিকের বস্তা দিয়ে ঘর ভর্তি করে ফেলেন ।এক মাস পূর্ণ হলে আমি ঘর ভাড়া চাই। রাতে এসে দিবেন বলে জানান, কিন্তু তিনি আর ফিরেন নি ।’

তিনি বলেন, ‘এভাবে কাটে যায় দুই মাস। গত সোমবার সকালে তার ঘড়ে ঢুকি । কিছু বস্তা খুলতেই দেখতে পাই বস্তাগুলোতে টাকায় ভরা। ছোট ছোট অফনেক ব্যাগ দেখা যায়, ব্যাগগুলো ভেতর থেকে বেরিয়ে আসে প্রচুর কয়েন।’

সারা দিনে প্রায় সাতজন মানুষ দিয়ে টাকা গুলো গুনে পাওয়া যায় ৭৬ হাজার টাকা (এক টাকা, দুই টাকা থেকে শুরু করে ১০০-৫০০ টাকার নোট) ও ৮৮ কেজি টাকার কয়েন (চার আনা থেকে শুরু করে ৫ টাকা)।

মুগদা থানার ওসি প্রলয় কুমার শাহা জানান, ভিক্ষুক বৃদ্ধা ও তার মেয়েকে পাওয়া গেছে। টাকা গুলো তাদের কাছে হস্তান্তর করা হবে ।

এমবি/রাতদিন

লাইক দিয়ে সাথে থাকুন