অন্যরূপে ডেপুটি স্পিকার

অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বী মিয়া। গাইবান্ধা-৫ (ফুলছড়ি-সাঘাটা) আসন থেকে সাতবারের নির্বাচিত সাংসদ।  দশম জাতীয় সংসদে পালন করেছেন ডেপুটি স্পিকারের দায়িত্ব। একাদশ সংসদেও পালন করছেন  একই দায়িত্ব।

তাঁর বাবা ফয়জার রহমান ও মা হামিদুন নেছার আত্মার মাগফিরাত কামনায় দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেছিলেন তিনি।

সোমবার, ৪ ফেব্রুয়ারি সকালে নিজ এলাকা গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার গটিয়া গ্রামে এ দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

ওই আসনের কয়েক হাজার নানা শ্রেণীর মানুষ এ আয়োজনে অংশ নেন। যাদের মধ্যে দরিদ্র মানুষই ছিলেন বেশি।

দোয়া শেষে সবাইকে পেটপুরে খাওয়ানো হয়। আর তাদের নিজ হাতেই পরিবেশন করে খাইয়েছেন অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বী মিয়া।

ছবি : সংগৃহীত

দেখা যায়, উপস্থিত লোকজন লাইন ধরে মাটিতে বিছানো খড়ের উপর বসেছেন। তাদের প্লেটে প্লেটে ভাত। আর ফজলে রাব্বী তরকারির গামলা নিয়ে সবার পাতে তা তুলে দিচ্ছেন।

এসময় তিনি ছিলেন লুঙ্গি পড়ে, খালি পায়ে।

ছবি : সংগৃহীত

খাওয়া শেষে কয়েকজন জানান, যার যতটা ভাত-মাংস লেগেছে স্পিকার ততটাই নিজ হাতে তুলে দিয়ে শান্তি করে খাইয়েছেন। এত বড় মাপের মানুষ হয়েও এতে তিনি কোনো সংকোচ করেননি।

অন্যান্যের মধ্যে দোয়া মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন সাঘাটা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নাজমুল হুদা দুদু ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হামিদ বাবু।

ছিলেন সাঘাটা উপজেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত  চেয়ারম্যান নাজনীন আক্তার, রেলওয়ে শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক আলী হায়দার, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি হারুনুর রশিদ হিরু ও সাধারণ সম্পাদক নাছিরুল আলম স্বপন প্রমুখ।

এইচএ/০৫.০২.১৯

লাইক দিয়ে সাথে থাকুন