‘দেশের সংবিধান বাঁচাতে’ অনশনে মমতা

কলকাতা পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারের সরকারি বাংলোতে ভারতের কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা (সিবিআই) কর্মকর্তাদের যাওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে অনশন শুরু করেছেন পশ্চিবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ও্ই ঘটনাকে কেন্দ্র করে তিনি মূলত ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী তথা বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে অনশনে নেমেছেন।

রোববার, ৩ ফেব্রুয়ারি রাত থেকে তিনি ধর্মতলার মেট্রো চ্যানেলে অনির্দিষ্টকারের জন্য অনশনে বসেছেন।

এর আগে বিকেলে শহরের লাউডন স্ট্রিটে পুলিশ কমিশনারের সরকারি বাসভবনে পৌঁছায় সিবিআই কর্মকর্তারা। এসময় সেখানে থাকা শীর্ষ পুলিশ কর্তারা সিবিআইকে বাধা দেন। শুধু বাধা দেওয়াই নয়, কলকাতা পুলিশের সঙ্গে রীতিমত ধাক্কাধাক্কি-ধস্তাধস্তি পর্যন্ত হয় তাদের মধ্যে।

এক পর্যায়ে সিবিআই কর্মকর্তাদের জোর করে নিয়ে যাওয়া হয় শেক্সপিয়ার সরণি থানায়। পরে অবশ্য সেখান তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়।

সিবিআই কোনো অনুমতি না নিয়েই কমিশনারকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে গিয়েছিল বলে অভিযোগ করেছে পুলিশ।

সারদা এবং রোজভ্যালি চিট ফান্ড মামলায় কলকাতার পুলিশ কমিশনার রাজীবকে জেরা করতে চায় সিবিআই এমন তথ্য দিয়ে সংবাদ সংস্থা পিটিআই এক খবরে জানায়, রাজীবকে একাধিকবার হাজিরার জন্য নোটিশ পাঠানো হলেও তিনি আসেননি। ফলে এবার তাকে গ্রেফতারের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল সিবিআই।

খবর পেয়ে আধাঘন্টার মধ্যে পুলিশ কমিশনারের বাংলোয় পৌঁছান মুখ্যমন্ত্রী। এরপর সেখানে এক সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘পশ্চিমবঙ্গে অভ্যুত্থান করার চেষ্টা চলছে। পরিস্থিতি জরুরি অবস্থার থেকেও ভয়াবহ’।

পরে তিনি ‘দেশের সংবিধান বাঁচাতে’ মেট্রো চ্যানেলে অনশন শুরু করেন। সূত্র : পিটিআই, আনন্দবাজার, জিনিউজ

এইচএ/০৩.০২.১৯

লাইক দিয়ে সাথে থাকুন