দরবারের দানবাক্স পাহারায় সাপ!

বরিশাল-কুয়াকাটা মহাসড়কের পাশেই বার আউলিয়ার দরবার শরীফ। প্রতিদিন এ পথে যাতায়াতকারীরা ছাড়াও স্থানীয় ও দূর-দূরান্ত থেকে অসংখ্য মানুষ দরবারের দানবাক্সে অর্থ দান করেন। তবে একটি অসাধু চক্র গত ১ বছরে ৩ থেকে ৪ বার দানবাক্সের তালা নানা কৌশলে খুলে অর্থ চুরি করে। মাসখানেক আগে চুরি ঠেকাতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) তালা মেরে তা ঝালাই করে দেন। এরপরও অর্থ চুরির ফন্দি করছে একটি চক্র।

তবে এবার বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার রঙ্গশ্রী ইউনিয়নে আউলিয়াপুর গ্রামের সেই বার আউলিয়ার দরবার শরিফের দানবাক্স পাহারা দিচ্ছে বিষধর সাপ। মাঝেমধ্যেই সাপটি দীর্ঘক্ষণ ধরে দানবাক্সে নিজেকে জড়িয়ে রাখে। এ দৃশ্য দেখে স্থানীয়দের ধারণা, টাকা চুরি রোধে হয়তো অলৌকিকভাবে সাপটি এমনটি করছে।

সর্বশেষ সোমবার, ১৮ মার্চ দুপুর থেকে প্রায় ৫ ঘন্টা সাপটি তালাসহ দান বাক্সটি জড়িয়ে থাকে। এসময় কেউ দান বাক্সের দিকে এগিয়ে গেলে ছোবল মারার উদ্দেশ্যে সাপটি ফনা তুলেছে। তবে মঙ্গলবার সাপটিকে দেখা যায়নি।

দরবার শরীফের মোতওয়াল্লির প্রতিনিধি মাওলানা হেলালুজ্জামান জানান, আউলিয়াপুর গ্রামে ৫৬৩ বছর আগে দিল্লীর তৃতীয় মুঘল সম্রাট আকবরের শাসনামলে এ এলাকায় ১২ জন ওলি-আউলিয়া ইসলাম প্রচারের জন্য আসেন। তারা এখানে থেকে ইসলামের আলো ছড়িয়ে দিতে থাকেন।

তিনি জানান, কয়েক বছর ধরে স্থানীয় একটি চক্র দরবার শরীফের দানবাক্সের অর্থ চুরি করে আসছে। সেই কারণেই হয়তো এমন অলৌকিক ঘটনা ঘটেছে বলে তাঁর ধরাণা।

বাকেরগঞ্জ থানার ওসি মো. মাসুদুজ্জামান জানান, ঘটনাটি শুনেছি। সাপটি নাকি বিষধর। ওয়াকফ স্টেট হিসেবে ওই দরবার শরীফের যাবতীয় কার্যক্রম তদারকি করে উপজেলা প্রশাসন।

এইচএ/রাতদিন

লাইক দিয়ে সাথে থাকুন