পীরগঞ্জে জমি ফিরিয়ে দেয়ার দাবিতে বিক্ষোভ-মানববন্ধন

রংপুরের পীরগঞ্জে কৃষকের জমি দখল ও কৃষকের উপর হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল-প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে বিক্ষুদ্ধরা। এসময় উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে(ইউএনও) স্মারকলিপিও দেওয়া হয়।

শনিবার, ২৬ জানুয়ারি এ কর্মসূচি পালিত হয়।

দুপুরে হামলার শিকার পরিবারসহ রামনাথপুর গ্রামের দেড় শতাধিক মানুষ উপজেলা সদরের বিভিন্ন সড়কে বিক্ষোভ মিছিল করে। পরে পরীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধনে অংশ নেয়।

এসময় বক্তব্য রাখেন জাকিরুল ইসলাম, সেলিম মিয়া, সাপেরুল ও মুকুল।

জমি দখল-হামলার ঘটনায় স্থানীয় থানায় অভিযোগ করেছেন জামির মালিকানা দাবিদারদের একজন স্বাধীন মিয়া।

তিনি বলেন, ‘আমার দাদারা চার ভাই। তাদের দুই ভাই তিন একর ৬০ শতক জমির পুরোটাই বিক্রি করে দিয়েছেন। অথচ অপর দুই ভাইয়ের উত্তরসূরি হিসেবে আমরা ১৯৪০ এবং ১৯৬২ সালের রেকর্ড মূলে ১ একর ৮০ শতক জমির মালিক’।

তিনি দ্রুত তাদের জমি ফিরিয়ে দেওয়ার পাশাপাশি হামলায় জড়িতদের গ্রেফতার দাবি করেন।

জানা গেছে, ২০১৩ সালে ওই পুরো জমি কিনে নিয়েছে নিমাণাধীন আফতাব হ্যাচারী নর্দান লিমিটেড কর্তৃপক্ষ। তবে সম্প্রতি প্রতিষ্ঠানটিতে মেশিন স্থাপন ও অবকাঠামো নির্মাণ কাজ শুরু হলে জমির মালিক দাবিদারদের সাথে কর্তৃপক্ষেল টানাপোড়েন শুরু হয়।

এরই ধারাবাহিকতায় গত ২১ জানুয়ারি ওই জমিতে সেখানে গাছের জারা রোপন করে মালিকানা দাবিদাররা। কিন্তু পরদিন হ্যাচারী কর্তৃপক্ষের লোক পরিচয় দেওয়া কয়েকজন ওই চারা তুলে ফেলে। এতে সংঘর্ষ বাঁধলে উভয় পক্ষের ১০ জন আহত হয়।

বিষয়টি নিয়ে দুই পক্ষই থানায় অভিযোগ দিলেও এখন পর্যন্ত কোনো মামলা হয়নি।

আফতাব হ্যাচারী নর্দান লিমিটেডের পক্ষে মো. হৃদয় এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘আমরা মেশিন স্থাপন ও অবকাঠামো নির্মান শুরু করলে সাত বছর পর পরিবার দুটি জমির মালিকানা দাবি করছে। অথচ আমরা আদালতের ছয়টি রায়ের মুলে জমি কিনেছি’।

এইচএ/২৬.০১.১৯

লাইক দিয়ে সাথে থাকুন