পীরগঞ্জে হচ্ছে অর্থনৈতিক অঞ্চল, জমি নির্বাচন সম্পন্ন

রংপুরের পীরগঞ্জে আবারও অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার জন্য জমি নির্বাচন করা হয়েছে। সোমবার, ১ এপ্রিল সহকারী কমিশনার (ভুমি) উপজেলার রাউৎপাড়া ও ঘোষপুর গ্রামের ২০০ একরের বেশি জমি নির্বাচন করেছেন। এর আগেও পীরগঞ্জে অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নেয়া হয়েছিল।

সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা গেছে, সরকার দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে পরিকল্পিতভাবে শিল্পকারখানা স্থাপনের জন্য বিভিন্ন এলাকায় অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার সিদ্ধান্ত নেয়। সে লক্ষ্যে বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেজা), প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের একটি চিঠি আসে রংপুরের জেলা প্রশাসকের কাছে। এতে রংপুর জেলায় অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার জন্য প্রস্তাব পাঠাতে বলা হয়েছে।

চিঠিতে পীরগঞ্জের উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে মহাসড়কের কাছাকাছি ২০০ থেকে ৩০০ একর বা এরও বেশি খাসজমি নির্বাচন করার জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে। আর খাসজমি না পাওয়া গেলে ব্যক্তি মালিকানাধীন জমির প্রস্তাব পাঠাতে বলা হয়েছে।

রংপুরের জেলা প্রশাসক এনামুল হাবীব বলেন, ‘অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার জন্য জরুরী ভিত্তিতে জমি নির্বাচন করে প্রস্তাব প্রেরনের জন্য ইউএনওকে বলা হয়েছে।’



এদিকে চিঠি পেয়ে সোমবার উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সঞ্জয় কুমার মহন্ত এবং সার্ভেয়ার আমিনুল ইসলাম রংপুরÑঢাকা মহাসড়কের পূর্বপাশে উপজেলার রাউৎপাড়া ও ঘোষপুর গ্রামে ২০০ একর জমি নির্বাচন করেছেন।

রাউৎপাড়ার ফজলুল হক মন্ডল নামের একজন জমির মালিক বলেন, ‘আমরা কর্মসংস্থান চাই। তাই অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠায় যত পরিমাণ জমি প্রয়োজন তা দিতে আমরা প্রস্তুত।’

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সঞ্জয় কুমার মহন্ত বলেন, ‘অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার জন্য ঘোষপুর ও রাউৎপাড়ায় জমি পরিদর্শন করেছি। জমিগুলো সমতল এবং ভুমি মালিকরাও বেশ উৎসাহী।’ তিনি জানান, মঙ্গলবার, ২ এপ্রিল প্রস্তাব পাঠানোর সম্ভাবনা রয়েছে।

জানা গেছে, এর আগে শানেরহাট ইউনিয়নের চার গ্রামের ৯৩ জন জমি মালিক ঘোষপুর ও রাউৎপাড়ায় অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার জন্য স্থানীয় সংসদ সদস্য ও স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর কাছে স্মারকলিপি প্রদান করেছিলেন।

এবি/রাতদিন

লাইক দিয়ে সাথে থাকুন