পুণরায় নির্বাচন করে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে : ফখরুল

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচন কোনো নির্বাচন হয়নি। মানুষ এ নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করেছে। বিএনপি প্রত্যাখ্যান করেছে, ঐক্যফ্রন্ট প্রত্যাখ্যান করেছে। ফলে এতে কে জিতেছে কে হেরেছে সেটা মূখ্য বিষয় নয়’।

তিনি বলেন, ‘জনগণের কাছে মূখ্য বিষয় হচ্ছে তারা তাদের ভোটের অধিকার হারিয়েছে। তাদের ভোটের অধিকার ডাকাতি করা হয়েছে’।

সোমবার, ২১ জানুয়ারি দুপুরে লালমনিরহাট সদর উপজেলার রাজপুর ইউনিয়নের পূর্ব খলাইঘাটে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন।

গত ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচন চলাকালে ওই এলাকায় এক সংঘর্ষে নিহত তোজাম্মেল হকের কবর জিয়ারত ও তার পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাতে এসে তিনি এসব কথা বলেন। নিহত ওই ব্যক্তি ইউনিয়ন বিএনপির পরিবার পরিকল্পনা বিষয়ক সম্পাদক ছিলেন বলে দাবি বিএনপির।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আমরা আগেই বলেছি এ নির্বাচন বাতিল করে পুনরায় নিরপেক্ষ-নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন করে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে’।

নিহত তোজাম্মেল হক প্রসঙ্গে ফখরুল বলেন, ‘আ.লীগের সন্ত্রাসীরা তাকে নির্বাচনের দিন নির্মমভাবে হত্যা করেছে। আমরা এ ঘটনার নিন্দা জানাই’।

ছবি : রাতদিন.নিউজ

এর আগে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর নিহতের কবর জিয়ারত করেন এবং তার পরিবারকে সমবেদনা জানান। এসময় পরিবারের সদস্যদের হাতে অর্থ সহায়তা তুলে দেওয়া হয়।

এদিকে নির্বাচনী ওই সংঘর্ষে আহত পূর্ব খলাইঘাট এলাকার বাসিন্দা আব্বাস, কবির, তফিজ, সামিউর, হারুণ. শাহ আলম, দেলওয়ার ও শাহ জাহানের হাতেও সহায়তার অর্থ তুলে দেওয়া হয়।

ছবি : রাতদিন.নিউজ

পরে পূর্ব খলাইঘাটে আয়োজিত এক প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী, আ স ম আব্দুর রব, ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, লালমনিরহাট জেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক উপমন্ত্রী আসাদুল হাবিব দুলু প্রমুখ।

ছবি : রাতদিন.নিউজ

এইচএ/২১.০১.১৯

লাইক দিয়ে সাথে থাকুন