প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সহযোগী গ্রেপ্তার

নির্বাচন নিয়ে তদন্তে মিথ্যা সাক্ষ্য দেয়ার অভিযোগে গ্রেপ্তার হয়েছেন রজার স্টোন। তিনি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সহযোগী।

শুক্রবার, ২৫ জানুয়ারি তাকে ফ্লোরিডা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। মার্কিন সংবাদমাধ্যম এ খবর দিয়েছে।

মার্কিন নির্বাচনে রুশ হস্তক্ষেপের বিষয়ে তদন্তে কংগ্রেসে মিথ্যা সাক্ষ্য দেয়া, আর তদন্তে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টিসহ সবমিলিয়ে ৭টি অভিযোগ আনা হয়েছে রজার স্টোনের বিরুদ্ধে ।

গ্রেপ্তার রজারকে ফোর্ট লডারডেলের আদালতে হাজির করা হবে। স্বঘোষিত ‘নোংরা প্রতারক’ রজার স্টোন ট্রাম্পের দীর্ঘদিনের সহযোগী।

১৯৭০ সাল থেকে তিনি রিপাবলিকান দলের রাজনৈতিক প্রচারণার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। ২০১৬ সালে ট্রাম্পকে নির্বাচনে বিজয়ী করার পর  ‘The Making of the President 2016’ নামে একটি বই প্রকাশ করেন তিনি।

২০১৬ সালে মার্কিন নির্বাচনের সময় রাশিয়া কর্তৃক ডেমোক্রেটিক পার্টির ইমেইল হ্যাকের ঘটনায় স্টোনের সম্পৃক্ততা রয়েছে।

হিলারি ক্লিনটনের নির্বাচনি প্রচারণা ম্যানেজার জন পডেস্টা সেসময় অভিযোগ করেছিলেন, ইমেইল হ্যাকের ঘটনাটি স্টোন আগে থেকেই জানতেন।

ওই তদন্তের বিশেষ পরামর্শক রবার্ট মুলারের কার্যালয় থেকে জানানো হয়, ২০১৬ সালের ইমেইল হ্যাকের ঘটনা ট্রাম্পের সহযোগীরা আগে থেকেই জানতেন। তারা চাচ্ছিলেন হ্যাক হওয়া ইমেইলগুলো যেন প্রকাশিত হয়।

যদিও হ্যাক হওয়া ওইসব ইমেইল নির্বাচনের আগে উইকিলিকস ফাঁস করে দেয়।

তদন্তে সাক্ষীদের ঘুষ প্রদান, প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি ছাড়াও  হ্যাক হওয়া মেইলগুলি উইকিলিকসে প্রকাশের ক্ষেত্রে রজার স্টোনের সংশ্লিষ্টতার ব্যাপারে মিথ্যা সাক্ষ্য দেয়ার জন্য তাকে অভিযুক্ত করা হয়।

এমআরডি – ২৬/০১/২০১৯

লাইক দিয়ে সাথে থাকুন
মতামত দিন