রহস্যময় মানব দেহ!

প্রকৃতির মতোই রহস্যে ঘেরা মানব দেহ। রহস্যময় এই মানবদেহের অজানা কিছু তথ্য জানুন যেটি আপনার কল্পনাকেও হার মানাবে।

১। আমাদের হাত, পায়ের আঙ্গুলের ছাপ ও জিহ্বার রেখা প্রত্যেকেরই সম্পুর্ন আলাদা। কোনভাবেই একজনের সাথে অন্যেরটি মিলবে না।

২। জিহ্বা হচ্ছে মানব দেহের সবচাইতে শক্তিশালী পেশী। জিহ্বায় রয়েছে ৩০০০টি টেস্ট বাড যা দিয়ে আমরা স্বাদ বুঝতে পারি।

৩। আমরা ৫০,০০০ ধরনের ঘ্রাণ মনে রাখতে পারি। ঘুমন্ত অবস্থায় আমাদের ঘ্রাণ শক্তি নিষ্ক্রিয় হয়ে যায়। এজন্য আমরা ঘুমিয়ে থাকলে কোন প্রকার ঘ্রাণ অনুভব করি না।

৪। মানব দেহে প্রতিদিন ১,০০,০০০ বারেরও অধিকবার হৃদস্পন্দন হয়। নারীদের হৃদস্পন্দনের হার পুরুষের তুলনায় অধিক। ফলে নারীদের হৃদস্পন্দন হয় আরও বেশী।

৬। নবজাতক শিশুরা শুধুমাত্র সাদা ও কালো রং দেখতে পারে। এজন্য রঙ্গিন জিনিষকেও এরা সাদা কালো হিসেবেই দেখে।

৭। আমাদের মস্তিষ্ক দিনের চাইতে রাতেই বেশী সক্রিয় থাকে। মজার তথ্য হলো, আমাদের মস্তিষ্কের ৮০ ভাগই পানি।

৮। অদ্ভুত হলেও সত্য, আমাদের মস্তিষ্কের ডান দিকের অংশ শরীরের বাম দিককে আর মস্তিষ্কের বাম দিকের অংশ নিয়ন্ত্রন করে শরীরের ডান দিককে।

৯। এনসাইক্লোপেডিয়া ব্রিটানিকায় যতগুলো তথ্য রয়েছে, তার চাইতে পাচগুন বেশী তথ্য জমা রাখতে পারে মানব মস্তিষ্ক।

১০। আমরা যে পরিমান অক্সিজেন গ্রহণ করি তার ২০ ভাগ ব্যবহার করে মস্তিষ্ক।

১১। মানবদেহে কোষের সংখ্যা প্রায় ১০,০০০ ট্রিলিয়ন।

১২। পায়ের আঙ্গুলের মত, হাতের আঙ্গুলের অগ্রভাগ মানব দেহের সম্পুর্ণ ভার বহন করতে সক্ষম।

১৩। হাত ও পায়ের পাতার হাড়ের সংখ্যা শরীরের মোট হাড়ের সংখ্যার অর্ধেক।

১৪। মৃত্যুর পরেও চুল ও নখ লম্বা হতে থাকে।

১৫। মানুষ খাবার না খেয়ে ২০ দিন পর্যন্ত বেঁচে থাকতে পারে। কিন্তু পানি না খেয়ে ২ দিনের বেশী বাঁচতে পারে না।

লাইক দিয়ে সাথে থাকুন