পাটগ্রামে মহাসড়কের উপর হেলে যাওয়া গাছ, প্রাণের ঝুঁকি নিয়েই চলছে যানবাহন

লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারী ইউনিয়নের উফারামারা গ্রামের ঘুন্টি এলাকার লালমনিরহাট – বুড়িমারী স্থলবন্দর মহাসড়কের উপর দুই পার্শ্বে দু’টি শীল কড়াই (রেইন্ট্রি) গাছ হেলে যাওয়ায় পণ্যবাহী গাড়ি চলাচলে দুর্ভোগের সৃষ্টি হয়েছে। নিত্যদিন দূরপাল্লার গাড়ি চালকেরা এ নিয়ে সমস্যায় পড়ছেন। অনেকের মতে গুরুত্বপূর্ণ এ মহাসড়কটিতে হেলে যাওয়া গাছ দু’টি না কাটলে যে কোনো সময় গাছ ভেঙে পড়ে বড় ধরনের দুর্ঘটনার পাশাপাশি জনসাধারণের প্রাণহানী ঘটার শঙ্কা রয়েছে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, বুড়িমারী ইউনিয়নের ঘুন্টি এলাকা ও বাজার হতে প্রায় ৫০০ মিটার পূর্বে ও বুড়িমারী স্থলবন্দর থেকে প্রায় চার কিলোমিটার পূর্বে মহাসড়কের উপর দুইটি শীল কড়াই গাছ দীর্ঘদিন ধরে হেলে রয়েছে। এতে পণ্যবাহী গাড়ি সমূহ চলাচলের সময় গাছ দু’টিতে লেগে গাছ ক্ষয়ে যেতে দেখা গেছে। অনেক সময় পণ্য ঢেকে নিয়ে যাওয়ার সময় ত্রিপল ছিড়ে যায় ও পণ্যতে লেগে ক্ষতি হয় পণ্যের। এতে গাড়ি চালকদের নানা ধরনের বিড়ম্বনার শিকার হতে হয়।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ওই এলাকার মহাসড়কের পাশের এ গাছ গুলো লালমনিরহাট জেলা পরিষদের মালিকানাধীন। সড়কের পাশের বেশ কিছু গাছ কর্তন করা হলেও এ গাছ দু’টি কাটা হয়নি। প্রায় এক যুগেরও বেশি সময় ধরে এ গাছ দু’টি হেলে থাকায় সড়ক দিয়ে পণ্যবাহী ও খালি গাড়ি চলাচলে গাড়িকে সাইড দিতে গিয়ে গাছের সাথে লেগে যায়। এভাবে লেগে গাছ গুলো ক্ষয় গিয়ে ভঙুর অবস্থায় রয়েছে।

পাটগ্রাম উপজেলা থেকে অটো চার্জার ভ্যান গাড়ি, মোটরসাইকেল, মাইক্রোবাসসহ বিভিন্ন ধরণের যানবাহন চলাচল করে। বুড়িমারী স্থলবন্দর থেকেও পণ্যবাহী গাড়ি, কার্ভাড ভ্যান, দূরপাল্লার কোচ ছেড়ে আসে। পাশাপাশি একটি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও একটি কলেজের শিক্ষার্থীরা এ পথ দিয়ে যাতায়াত করে থাকে। গাড়ি চালক, ব্যবসায়ী ও সাধারণ মানুষের শঙ্কা যে কোনো সময় গাছ ভেঙে পড়ে গাড়ি ও সাধারণ মানুষের প্রাণহানীসহ বড় ধরণের দূর্ঘটনা ঘটতে পারে।

বাউরা ইউনিয়নের বাসিন্দা ও পাথর ব্যবসায়ী শ্রী. সুষ্ময় রায় তরুন বলেন, ‘গাছ দুটি বহু বছর ধরে হেলে রয়েছে। সাধারণ মানুষ এ মহাসড়ক দিয়ে ভয়ে ভয়ে পথ চলাচল করে।’

ট্রাক চালক জাহিদ হোসেন বলেন, ‘শীল কড়াই গাছ দু’টি দু’দিক হতে যেভাবে হেলে আছে তাতে গাছের নিচ দিয়ে পণ্যবাহী ট্রাক নিয়ে যাওয়ার সময় ভয়ে থাকতে হয়। গাছ দু’টি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কেটে সরিয়ে নেওয়া জরুরী। গাড়ির চালকেরা ব্যবসায়ীদেরকে অনেক বার বলেছে।’

বুড়িমারী স্থলবন্দরের মেসার্স তুলসি ইন্ডাস্ট্রিজের ব্যবসায়ী প্রতিনিধি রনি নাহা বলেন, ‘মহাসড়কে গাছ হেলে যাওয়ায় ট্রাক চালকেরা পণ্য নিয়ে যেতে সমস্যায় পড়ে। গাড়ির সাথে লেগে যায়, পণ্যের ক্ষতি হয়। যে কোনো সময় বড় ধরণের দূর্ঘটনা ঘটতে পারে।’

এ ব্যাপারে লালমনিরহাট সড়ক ও জনপথ বিভাগের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী আলতাফ হোসেন বলেন, ‘সড়কের দুই দিকে এ ধরণের পুরাতন গাছ অপসারণ করতে ও এ সকল বিষয় নিয়ে ইতিমধ্যে জেলা পরিষদ কর্তৃপক্ষকে চিঠি দেওয়া হয়েছে। গাছ সরানোর দায়িত্ব জেলা পরিষদ কর্তৃপক্ষের। আবারও জানাব।’

সাথে থাকুন...
error1