পাটগ্রাম সীমান্তে বিএসএফের অনুপ্রবেশ, প্রতিরোধের মুখে অস্ত্র ফেলে পলায়ন

লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার সীমান্তবর্তী একটি গ্রামে অবৈধভাবে অনুপ্রবেশ করে বাংলাদেশিদের ধাওয়া করার অভিযোগ উঠেছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) বিরুদ্ধে।

এসময় উত্তেজিত গ্রামবাসী দুই বিএসএফ জওয়ানকে ঘিরে ধরলে তারা ফাঁকা গুলি ছুড়ে ভারতে ফিরে যায়। তবে যাওয়ার সময় তাদের একটি রাইফেল ফেলে গেছে।

শুক্রবার, ১৮ জানুয়ারি রাতে পাটগ্রামের মুংলিবাড়ি সীমান্তের ৮৪১ নম্বর আর্ন্তজাতিক সীমানা পিলারের কাছে এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার পর থেকেই সীমান্তের ওপারে বিপুল সংখ্যক বিএসএফ জওয়ান মোতায়ন করা হয়েছে বলে জানাচ্ছে সীমান্তবাসী। অপরদিকে বিজিবিও সতর্ক অবস্থায় রয়েছে বলে জানা গেছে।

জানতে চাইলে রংপুর ৬১ বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) অধিনায় লে. কর্ণেল শরীফ রাত সাড়ে নয়টার বলেন, ‘আমি ঘটনাস্থলের দিকে রওনা হয়েছি। সেখানে আমাদের স্থানীয় বিজিবি সদস্যরা রয়েছে’।

‘বিএসএফের ফেলে যাওয়া অস্ত্র বিজিবি’র হেফাজতে রয়েছে’ যোগ করে বলেন তিনি।

সীমান্ত এলাকার লোকজন জানায়, শুক্রবার সন্ধ্যার পর সীমান্ত লাগোয়া মংলিবাড়ি গ্রামের দক্ষিণে চার বাংলাদেশি যুবককে ঘোরাফেরা করতে দেখে বিএসএফ। এরই এক পর্যায়ে সীমান্ত অতিক্রম করে বাংলাদেশের অভ্যান্তরে ঢুকে পড়ে ভোটপাট্টি বিএসএফ ক্যাম্পের দুই সদস্য। এরপর তারা দেশের অভ্যন্তরেও বাংলাদেশিদের ধাওয়া করতে থাকে।

এ খবর ছড়িয়ে পড়লে গ্রামবাসীরা একত্রিত হয়ে বিএসএফ জওয়ানদের ঘিরে ফেলে। এক পর্যায়ে বিএসএফ সদস্যারা তিন রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুড়ে ঘটনাস্থল থেকে সটকে পরে। যাওয়ার সময় তাদের ব্যবহৃত একটি অস্ত্রও ফেলে যায়।

পরে খবর পেয়ে বুড়িমারী বিজিবি ক্যাম্পের সদস্যরা ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্রটি উদ্ধার করে।

এইচএ/১৮.০১.১৯

লাইক দিয়ে সাথে থাকুন