বিএসএফের গুলিতে জানুয়ারিতে নিহত ৬, আসকের উদ্বেগ


‘সীমান্তহত্যা বন্ধে ভারত সরকারের বারবার প্রতিশ্রুতির পরও বিএসএফের এমন আচরণ কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়’

ভারতের সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ) গুলি করে ও নির্যাতন চালিয়ে জানুয়ারিতে ছয় বাংলাদেশিকে হত্যা করেছে এমন তথ্য দিয়ে এতে গভীর উদ্বেগ ও নিন্দা জানিয়েছে আইন ও সালিশ কেন্দ্র (আসক)।

এক বিবৃতিতে সংস্থাটির নির্বাহী পরিচালক শীপা হাফিজা জানান, এ বছরের জানুয়ারিতে ঠাকুরগাঁওয়ে চার জন এবং  নীলফামারী ও রাজশাহীতে একজন করে বাংলাদেশি প্রাণ হারিয়েছে।

‘সীমান্তহত্যা বন্ধে ভারত সরকারের বারবার প্রতিশ্রুতির পরও বিএসএফের এমন আচরণ কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়’ বলেও বিবৃতি উল্লেখ করা হয়।

এদিকে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ঠাকুরগাঁওয়ে যে চার বাংলাদেশি  মারা গেছেন তাদের তিনজনেই প্রাণ হারিয়েছেন ১০ দিনের ব্যবধানে। তাদের মধ্যে ১৪ বছর বয়সী এক কিশোরও রয়েছে।

বিএসএফের গুলিতে গত ২৮ জানুয়ারি রাণীশংকৈল উপজেলার জগদল সীমান্তে বাবু (১৪) নামের এক কিশোর নিহত হয়।

একই উপজেলার ধর্মগড় সীমান্তে ১৮ জানুয়ারি বিএসএফের গুলিতে প্রাণ যায় জাহাঙ্গীর আলমের (২১)।

২১ জানুয়ারি হরিপুর উপজেলার মিনাপুর সীমান্তে মো. জেনারুল হক (২২) নামে আরেক যুবক ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর গুলিতে প্রাণ হারান। 

এইচএ/০১.০২.১৯

লাইক দিয়ে সাথে থাকুন